• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:০৭ রাত

রুশ সামরিক বিমান ধ্বংসে ইসরায়েলকে দোষারোপ

  • প্রকাশিত ০৮:২৫ রাত সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৮
Plane Crash
ছবি: এএফপি

ইলিউশিন-২০ বিমানটি সিরিয়ার উপকূল থেকে রাশিয়ার হামেইমিম বিমানঘাঁটির দিকে যাচ্ছিলো।

নিজেদের ক্ষতির জন্য ইসরায়েলকে পরোক্ষভাবে দোষারোপ করছে রাশিয়া। দোষারোপের কারণ ইসরায়েলি আক্রমণে সিরিয়ার আকাশসীমায় একটি রুশ বিমান ভূপাতিত হয়েছে। মঙ্গলবার (১৮ সেপ্টেম্বর) ইসরায়েলের প্রতি হুঁশিয়ারি দিয়ে রাশিয়া জানায়, তারা ঘটনাটিকে ইসরায়েলের আগ্রাসী আচরণ হিসেবেই বিবেচনা করছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের বরাতে জানা গেছে, সোমবার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাশিয়ার একটি সামরিক বিমান সিরিয়ার আকাশসীমা থেকে উধাও হয়ে যায়। স্থানীয় সময় রাত ১১টার দিকে রুশ বিমানটির সঙ্গে যোহাযোগ বন্ধ হয়ে যাওয়া। ইলিউশিন-২০ বিমানটি সিরিয়ার উপকূল থেকে রাশিয়ার হামেইমিম বিমানঘাঁটির দিকে যাচ্ছিলো।

ঘটনাটির জন্য ইসরায়েলকে দোষারোপ করছে রাশিয়া। দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র জানান, “আমরা ইসরায়েলের সেনাবাহিনীর এই আচরণকে আগ্রাসী হিসেবে বিবেচনা করছি। তাদের এই দায়িত্বহীনতার কারণে ১৫ জন রুশ সেনার মূল্য দিতে হয়েছে।”

রুশ মন্ত্রণালয়ের দাবি, বিমানটি হারিয়ে যাওয়ার সময় সেখানে ইসরায়েলি যুদ্ধবিমান অবস্থান করছিল। রুশ বিমানকে মাত্র এক মিনিটের সতর্কবার্তা দিয়েই গুলি চালানো শুরু করে তারা। এরপর সিরিয়া বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা গুলি চালালে ধ্বংস হয় রুশ বিমানটি।

তবে এই ঘটনায় ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে এখনও কোনও মন্তব্য করা হয়নি। তাদের প্রধানমন্ত্রী বা পররাষ্ট্র মন্ত্রীর কার্যালয়ও কিছু জানায়নি বলেই জানিয়েছে রয়টার্স।