• শুক্রবার, অক্টোবর ১৮, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:০৩ রাত

‘নৃশংস’ হামলার জন্য উপসাগরীয় প্রতিদ্বন্দ্বীদের দুষছে ইরান

  • প্রকাশিত ১১:১৮ সকাল সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৮
সামরিক বাহিনীর কুচকাওয়াজে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত উপসাগরীয় দেশগুলোকে দায়ী করেছে ইরান।
সামরিক বাহিনীর কুচকাওয়াজে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত উপসাগরীয় দেশগুলোকে দায়ী করেছে ইরান। ছবি : বিবিসি

হামলার পর ইরানে নিযুক্ত যুক্তরাজ্য, নেদারল্যান্ডস ও ডেনমার্কের কূটনীতিকদের তলব করেছে ইরান সরকার।

সামরিক বাহিনীর কুচকাওয়াজে সন্ত্রাসী হামলায় এক শিশুসহ ২৯ জন নিহতের ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত উপসাগরীয় দেশগুলোকে দায়ী করেছে ইরান। গতকাল শনিবার দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের আহভাজ শহরে এই হামলার ঘটনা ঘটে। 

ইরানের ধর্মীয় নেতা আয়াতোল্লাহ আলি খামেনি জানিয়েছেন ইরানে ‘নিরাপত্তাহীনতা সৃষ্টি’ করার জন্যই এই হামলা। আর ‘মার্কিনিদের পুতুলরাই’ এই চেষ্টা করে আসছে। তবে নির্দিষ্ট করে কোনো দেশের নাম উল্লেখ করেননি তিনি। 

তবে এর আগে দেশটির সরকার বিরোধী আরব গ্রুপ ‘আহভাজ ন্যাশনাল রেসিস্টেন্স’ ও জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস) হামলার দায় স্বীকার করে। 

এ বিষয়ে হামলার পর দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভাদ জারিফ ‘বিদেশিদের অর্থে চলা সন্ত্রাসীদের’ হামলার জন্য দায়ী করে বলেন, ‘ইরান এই হামলার জন্য সন্ত্রাসবাদের আঞ্চলিক পৃষ্ঠপোষোক ও তাদের মার্কিনি প্রভুদের দায়ী করছে।’  

ইরানের রাষ্ট্র পরিচালিত বার্তা সংস্থা ইরনা জানায়, হামলার পর ইরানে নিযুক্ত যুক্তরাজ্য, নেদারল্যান্ডস ও ডেনমার্কের কূটনীতিকদের তলব করেছে ইরান সরকার। অভিযোগ-ইরানের বিভিন্ন সরকারবিরোধী দলকে সহায়তা করছে এই তিন দেশ। 

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাহরাম কাসেমি বলেন, ‘এটা গ্রহণযোগ্য নয় যে ইউরোপীয় ইউনিয়ন এই দলগুলো সন্ত্রাসী সংস্থা হিসেবে তালিকাভুক্ত করেনি, কারণ তারা এখনো ইউরোপে সন্ত্রাসী হামলা চালায়নি।’ 

এদিকে গতকালের হামলায় অন্তত ৫৪ জন আহত হয়েছে। আর নিহত ২৯ জনের মধ্যে দেশটির রেভ্যুলেশনারি গার্ডের সদস্যদের পাশাপাশি কুচকাওয়াজ দেখতে যাওয়া নারী ও শিশুরাও রয়েছে।

ইরানের রাষ্ট্রীয় সম্প্রচারমাধ্যমের বরাত দিয়ে আলজাজিরার খবরে বলা হয়, কুচকাওয়াজ চলাকালে বেশ কয়েকজন বন্দুকধারী পেছন থেকে হঠাৎ করে গুলি চালাতে শুরু করে। তারা ১০ মিনিট ধরে গুলি চালায়।