• সোমবার, মার্চ ৩০, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:০০ দুপুর

পরকীয়া বৈধ : ভারতের সুপ্রিম কোর্ট

  • প্রকাশিত ০৩:২০ বিকেল সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৮
ছবি : সংগৃহীত
ছবি : সংগৃহীত

ওই আইনের বিরুদ্ধে মামলাকারীরা  দাবি করেন, ঔপনিবেশিক শাসনকালে নারীদের পুরুষদের সম্পত্তি হিসেবে ধরা হতো। সে কারণেই এই আইন ছিল। তবে একই অপরাধে পুরুষকে দোষী করলে, নারীদের নয় কেন।

বিবাহিত নারী-পুরুষদের সঙ্গে বিবাহিত নারী-পুরুষদের শারীরিক সম্পর্ককে বৈধ বলে আখ্যা দিয়েছেন ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। এ সংক্রান্ত পুরোনো এক আইনকে অসাংবিধানিক বলে উল্লেখ করেছেন আদালতটি। 

আজ বৃহস্পতিবার রায় ঘোষণা করার সময় প্রধান বিচারপতি তার পর্যবেক্ষণে জানান, পরকীয়া সংক্রান্ত ওই স্বেচ্ছাচারিতার নামান্তর, যা নারীদের স্বাতন্ত্র্য খর্ব করে। 

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের খবরে বলা হয়, ব্রিটিশ শাসনমলে তৈরি আইন চ্যালেঞ্জ করে দায়ের হওয়া একটি মামলার পরিপ্রেক্ষিতেই এই রায় দেওয়া হয়। ১৮৬০ সালের ওই আইনে বলা হয়েছে, কোনো পুরুষ কোনো নারীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করলে এবং এতে ওই নারীর স্বামীর অনুমতি না থাকলে, ওই পুরুষের পাঁচ বছর পর্যন্ত জেল এবং জরিমানা অথবা উভয়ই হতে পারে।

ওই আইনের বিরুদ্ধে মামলাকারীরা  দাবি করেন, ঔপনিবেশিক শাসনকালে নারীদের পুরুষদের সম্পত্তি হিসেবে ধরা হতো। সে কারণেই এই আইন ছিল। তবে একই অপরাধে পুরুষকে দোষী করলে, নারীদের নয় কেন।

সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র রায়ে বলেন, ১৫৮ বছরের পুরনো এই আইনের কোনো দরকার নেই। স্ত্রী কখনো স্বামীর সম্পত্তি হতে পারে না। কোনো ব্যক্তি যদি কোনো বিবাহিত নারীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করেন তবে সেটা অপরাধ নয়।‌