• সোমবার, মার্চ ৩০, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:০৫ দুপুর

ইরানের ‘গোপন পারমাণবিক ভাণ্ডার’ চিনিয়ে দিলেন নেতানিয়াহু!

  • প্রকাশিত ১১:১৫ সকাল সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৮
তেহরানের কাছেই দেশটির ‘গোপন পারমাণবিক ভাণ্ডার’ রয়েছে বলে দাবী করেছেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু।
তেহরানের কাছেই দেশটির ‘গোপন পারমাণবিক ভাণ্ডার’ রয়েছে বলে দাবী করেছেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু। ছবি : রয়টার্স

২০১৫ সালে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সঙ্গে ইরানের একটি পারমাণবিক চুক্তি হয়। সেখানে ইরানকে পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি থেকে বিরত রাখার জন্য বিভিন্ন বিধিমালা তুলে ধরা হয়।

ইরানের রাজধানী তেহরানের কাছেই দেশটির ‘গোপন পারমাণবিক ভাণ্ডার’ রয়েছে বলে দাবী করেছেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু। বৃহস্পতিবার জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে দেওয়া বক্তব্যে এ দাবী করেন তিনি। 

এ সময় অধিবেশনে উপস্থিত বিশ্বনেতাদের একটি ছবি দেখিয়ে নেতানিয়াহু বলেন, ২০১৫ সালের পারমাণবিক চুক্তি লঙ্ঘন করে তেহরানের বাইরে সৌরাবাদ শহরের কাছে টন টন পারমাণবিক সরঞ্জাম মজুদ করছে ইরান। আর এই সরঞ্জামগুলো পারমাণবিক অস্ত্র তৈরিতেই ব্যবহার করার উদ্দেশ্যে রাখা।  

সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার খবরে বলা হয়, জাতিসংঘে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীর এমন দাবীর পর ইরানের পক্ষ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া মেলেনি। 

এর চার মাস আগে নেতানিয়াহু দাবী করেন, তেহরানের সরকারি অফিস থেকে ইসরায়েলি গোয়েন্দারা প্রায় আধা টন পারমাণবিক তথ্য সংশ্লিষ্ট দলিল সংগ্রহ করেছে। এর মাধ্যমে চুক্তির আগে থেকেই ইরানের নেতারা পরমাণু অস্ত্র প্রোগ্রামটি আড়াল করতে চাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। 

সাধারণ অধিবেশনে নেতানিয়াহু বলেন, ‘নিজেকেই একটা প্রশ্ন করেন, কেন ইরান একটি গোপন পারমাণবিক তথ্যাগার ও  সংরক্ষাণাগার রাখবে? ইরান পারমাণবিক তথ্যাগার ও  সংরক্ষাণাগার ধ্বংস করেনি, কারণ তারা পারমাণবিক অস্ত্র উন্নয়নের লক্ষ্য এখনো ত্যাগ করেনি।’ 

নেতানিয়াহু বলেন, ‘ইরান যা লুকাতে যাবে, ইসরায়েল তা খুঁজে বের করবে।’

২০১৫ সালে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সঙ্গে ইরানের একটি পারমাণবিক চুক্তি হয়। সেখানে ইরানকে পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি থেকে বিরত রাখার জন্য বিভিন্ন বিধিমালা তুলে ধরা হয়।