• সোমবার, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:২৪ রাত

স্মার্টফোনের কারণে ৩,১০০ জনকে জরিমানা

  • প্রকাশিত ১০:৪৩ রাত অক্টোবর ১, ২০১৮
cell-phones-1531311863898.jpg
স্মার্টফোনে জরিমানা। ছবি: রয়টার্স

পাশাপাশি প্রত্যেক অভিযুক্ত ব্যক্তির ড্রাইভিং লাইসেন্সে জমা হয়েছে একটি করে নেতিবাচক পয়েন্ট৷

সড়কে শৃঙ্খলা তদারকিতে বৃহস্পতিবার দেশজুড়ে ব্যাপক অভিযানে নেমেছিল জার্মান পুলিশ৷ দেশটির ১১ হাজার পুলিশ কর্মকর্তা একত্রে শুরু করেন অভিযান৷ শুধু স্মার্টফোনের কারণে জরিমানা গুনতে হয়েছে ৩ হাজার ১০০ জনের৷ তাদের কেউ গাড়ি চালানোর সময় ফোনে কথা বলছিলেন, কেউবা লিখছিলেন টেক্সট মেসেজ৷

ডয়েচে ভেলের তথ্য অনুযায়ী, মূল লক্ষ্য ছিল পথচারী নিয়ম মানছেন কিনা গাড়ি, মোটরবাইক বা বাইসাইকেল চালকরা কোথাও নিয়ম ভঙ্গ করছেন কিনা, এসব দেখাই ছিল ৷ একদিনে মাত্র কয়েক ঘণ্টা ধরে চালানো এ অভিযানের ফলাফলে দেখা গেছে, ৫১ হাজার জনকে শুধু মনোযোগ দিয়ে গাড়ি না চালানোর কারণেই সতর্ক করতে হয়েছে৷

মন দিয়ে গাড়ি না চালানোর কারণে একদিনে মামলা হয়েছে ৯ হাজার ৪০০টি৷  জার্মানিতে মদ পান করে গাড়ি চালানো নিষিদ্ধ৷ মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোর সময় ধরা পড়লে জরিমানা অবধারিত৷ মোবাইল হাতে নিয়ে গাড়ি চালানো তার চেয়েও বড় অপরাধ৷ যে মাত্রার মদ্যপান চালকদের জন্য বৈধ, তার দ্বিগুন মদ্যপান করার সমতুল্য মনে করা হয় মোবাইল হাতে গাড়ি চালানোকে৷ তবে জরিমানা এবং শাস্তি অবশ্য সমান৷ 

তাই মদ্যপ চালকদের মতো স্মার্টফোন ব্যবহার করতে করতে গাড়ি চালানো ওই ৩ হাজার ১০০ জনেরও হয়েছে ৬০ ইউরো জরিমানা৷ এর পাশাপাশি প্রত্যেক অভিযুক্ত ব্যক্তির ড্রাইভিং লাইসেন্সে জমা হয়েছে একটি করে নেতিবাচক পয়েন্ট৷ এমন পয়েন্ট যত জমবে, ততই বিপদ৷ এক পর্যায়ে লাইসেন্সও কেড়ে নেওয়া হয় অনেকের৷