• সোমবার, আগস্ট ২৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:১৬ রাত

ইন্সটাগ্রামের মাধ্যমে ‘শিশু’ বিক্রির দায়ে আটক চার

  • প্রকাশিত ০৬:০০ সন্ধ্যা অক্টোবর ১২, ২০১৮
ইন্সটাগ্রামের মাধ্যমে ‘শিশু’ বিক্রি
ইন্সটাগ্রামের মাধ্যমে ‘শিশু’ বিক্রির দায়ে আটক চার। ছবি: সৌজন্যে

‘ইন্দোনেশিয়ায় এর আগেও শিশু চোরাচালানির ঘটনা ছিল’

ফটো শেয়ারিং অ্যাপ ইন্সটাগ্রামের মাধ্যমে শিশু বিক্রির দায়ে চার ইন্দোনেশিয়ান ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এরই মধ্যে ওই অ্যাকাউন্টটি মুছে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

বিবিসি’র বরাতে জানা গেছে, গর্ভবতী নারী, আল্ট্রাসাউন্ড স্ক্যান এবং শিশুদের ছবি ছিলো ওই ইন্সটাগ্রাম অ্যাকাউন্টটিতে। কিন্তু অ্যাকাউন্টের কোনও পোস্টেই অর্থের বিনিময়ে শিশু বিক্রির কথা বলা হয়নি।

তবে দেশটির সুরাবায়া’র পুলিশের তথ্য অনুযায়ী, অ্যাকাউন্টটিতে একটি টেলিফোন নম্বর দেওয়া ছিলো, যাতে করে সম্ভাব্য ক্রেতারা হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন। এ প্রসঙ্গে সুরাবায়া-এর প্রধান গোয়েন্দা কর্মকর্তা কর্নেল সুদামিরান বলেন, “যারা শিশুদের দত্তক নিতে আগ্রহী তারা ওই অ্যাকাউন্টটি দেখে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে লেনদেন করত।” 

এদিকে বিবিসি জানিয়েছে, ওই অ্যাকাউন্টটির মোট ফলোয়ার সংখ্যা ছিল ৭০০। সেখানে মুখ অস্পষ্ট করে রাখা বেশ কয়েকটি শিশুর ছবি, বয়স, স্থান ও ধর্ম বিষয়ক তথ্য দেওয়া ছিল। এ ছাড়াও অ্যাকাউন্টটিতে লেনদেন পরিচালনাকারী ও ক্রেতাদের কথোপকথনের স্ক্রিনশট দেখা গেছে।

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে শিশু সুরক্ষা আইনে অভিযোগ আনা হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে প্রত্যেকের সর্বোচ্চ ১৫ বছর করে কারাদণ্ড হতে পারে বলেও জানিয়েছেন গোয়েন্দা কর্মকর্তা সুদামিরান।

অন্যদিকে দেশটির শিশু সুরক্ষা কমিশনের (কেপিএআই) ভাইস-চেয়ারম্যান রিতা প্রনওয়াতি বলেছেন, “ইন্দোনেশিয়ায় এর আগেও শিশু চোরাচালানির ঘটনা ছিল।” এ প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, “এ ধরনের ঘটনা ইনস্টাগ্রামের মাধ্যমে বিরল, নতুন পন্থা এটি।” 

‘শিশু বিক্রির’ অভিযোগের বিষয়টি নিয়ে ইনস্টাগ্রামের মন্তব্য জানতে চাইলেও, তাৎক্ষণিকভাবে কোনও মন্তব্য জানায়নি প্রতিষ্ঠানটি এমনটাই জানিয়েছে বিবিসি।