• বুধবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:১৫ রাত

ইহুদি উপাসনালয়ে হামলা, ক্ষুব্ধ ট্রাম্প

  • প্রকাশিত ০৪:৩৩ বিকেল অক্টোবর ২৮, ২০১৮
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প (ফাইল ছবি)। ছবি: রয়টার্স

‘এমন অপরাধের জন্য লোকজন মৃত্যুদণ্ড পাবে’

যুক্তরাষ্ট্রে ইহুদি উপাসনালয়ে হামলা এবং ১১ জনের প্রাণহানির ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনা এড়াতে মৃত্যুদণ্ডের শাস্তির কথাও জানিয়েছেন তিনি। 

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের বরাতে জানা গেছে, শনিবার সাংবাদিকদের নিজের এই অবস্থান সম্পর্কে জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ইহুদি উপাসনালয়গুলোর সুরক্ষার ওপর জোরারোপ করেন ট্রাম্প। এ প্রসঙ্গে তিনি জানান, সিনাগগে হামলায় ১১ জন নিহত হয়েছেন। অথচ বিদ্যমান অস্ত্র আইনে এ নিয়ে তেমন কিছু করার সুযোগ নেই। অথচ উপাসনালয়েরই ভেতরে যদি সুরক্ষার ব্যবস্থা থাকতো, তাহলে শুক্রবারের ঘটনাটি অন্যরকম হতে পারতো।

এ সময় ট্রাম্প বলেন, “দুর্বৃত্তরা দেখিয়ে দিয়েছে যে, যুক্তরাষ্ট্রে অস্ত্র আইন আরও কঠিন করা প্রয়োজন যেখানে মৃত্যুদণ্ডের বিধান থাকবে। এমন অপরাধের জন্য লোকজন মৃত্যুদণ্ড পাবে।”

এদিকে এরই মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যের পিটসবার্গের ইহুদি উপাসনালয়ে হামলার ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে রবার্ট বাউয়ার্স নামে এক হামলাকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

উল্লেখ্য, স্থানীয় সময় শনিবার সকাল ১০টায় বিশেষ অনুষ্ঠান চলাকালে সিনাগগে প্রার্থনারত ইহুদিদের ওপর হামলা চালানো হয়। এতে নিহত হন ১১ জন এবং চার পুলিশ সদস্যসহ গুরুতর আহত হয়েছেন মোট ছয়জন। পেনিসেলভিনিয়া অঙ্গরাজ্যের গভর্নর টম ওলফ এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, এরকম ঘটনা কোনো দিক থেকেই স্বাভাবিকভাবে নেওয়া যায় না।   

অন্যদিকে পেনসিলভানিয়া পশ্চিমাঞ্চলে নিযুক্ত অ্যাটর্নি স্কট ব্রাডি বলেছেন, “রবার্ট বাউয়ার্সের কর্মকাণ্ডকে মানবতার ইতিহাসে নিকৃষ্টতম অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হবে। ঘটনার তদন্ত ও বিচার নিশ্চিতে আমরা সব ধরনের পন্থা ব্যবহার করব।”