• শুক্রবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:২৬ রাত

নিউ ইয়র্কের হাডসন নদীতে দুই সৌদি নারীর লাশ

  • প্রকাশিত ১২:১৯ দুপুর নভেম্বর ২, ২০১৮
মৃত দুই সৌদি নারীর
গতসপ্তাহে নিউইয়র্কের হাডসন নদীতে দুই সৌদি তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে নিউ ইয়র্কের পুলিশ। ছবি: এপি।

যেদিন এই দুই বোনের মৃতদেহ খুঁজে পাওয়া যায়, তার আগের দিন সৌদি দূতাবাসের এক কর্মকর্তার কাছ থেকে তাদের মায়ের কাছে একটি ফোন কল আসে

গতসপ্তাহে নিউইয়র্কের হাডসন নদীতে দুই সৌদি তরুণীর মৃতদেহ উদ্ধার করেছে নিউ ইয়র্কের পুলিশ। উদ্ধারকৃত দুজনের মৃতদেহ এক সঙ্গে টেপ দিয়ে পেঁচানো ছিল বলে বিবিসির একটি খবরে উল্লেখ করা হয়েছে।

নিউ ইয়র্ক পুলিশ সূত্রে জানা গেছে উদ্ধার করা মৃতদেহ দুইটি আসলে দুই বোনের। তারা হলেন রোতানা ফারিয়া (২২) এবং তালা ফারিয়া (১৬)। তবে, কীভাবে এই দু'জনের লাশ নদীতে আসলো কিংবা কেমন করে তাদের মৃত্যু হয়েছে সে রহস্যের কোন কিনারা এখনো নিউ ইয়র্ক পুলিশ করতে পারেনি।

এ বিষয়ে নিউ ইয়র্কের গোয়েন্দা পুলিশের প্রধান বলেন, "এই দু'জনের জীবনের অনেক তথ্য এখনো অজানা। আমরা দু'জনের পুরো জীবনের একটা পরিস্কার চিত্র পাওয়ার চেষ্টা করছি।"

উল্লেখ্য, পায়ে ও কোমরে ডাক্ট টেপ প্যাঁচানো অবস্থায় এই দুইজনের মৃতদেহ উদ্ধার করার পর পুলিশ ধারণা করেছিল যে এটা আত্মহত্যার ঘটনা। তবে, তাদের শরীরে কোন আঘাতের আলামত না থাকায় পরে সেই সম্ভাবনা বাতিল করে পুলিশ কর্তৃপক্ষ।

তবে, বিস্তারিত না জানলেও মৃত এই দুই সৌদি নারী সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয় চেয়ে আবেদন করেছিল বলে জানিয়েছে নিউ ইয়র্কের পুলিশ। 

উল্লেখ্য, এই দুই বোন ২০১৫ সালে তাদের মায়ের সাথে যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ার ফেয়ারফ্যাক্সে আসে। তারা প্রায়ি তাদের ভার্জিনিয়ার বাসা থেকে পালিয়ে যেত বলে জানা গেছে।  

এদিকে, যেদিন দুই বোনের মৃতদেহ খুঁজে পাওয়া যায়, তার আগের দিন সৌদি দূতাবাসের এক কর্মকর্তার কাছ থেকে তাদের মায়ের কাছে একটি ফোন কল আসে। ঐ ফোনকলে যুক্তরাষ্ট্রের সৌদি দূতাবাসের এক কর্মকর্তা ঐ দুই নারীর মাকে যুক্তরাষ্ট্রে দুই বোনের রাজনৈতিক আশ্রয় চাওয়ার ঘটনা উল্লেখ করে পরিবারটিকে যুক্তরাষ্ট্র ছাড়ার নির্দেশ দেন বলে জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা এসোসিয়েটেড প্রেস।

তবে, সৌদি দূতাবাস থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়, "দূতাবাসের কর্মকর্তারা এই দুই বোনের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। এরা দুজনেই ছিল ছাত্র। তারা ওয়াশিংটনে তাদের ভাইয়ের সঙ্গে ছিল।" 

তবে, তাদের আবাসস্থল ভার্জিনিয়া থেকে ২৫০ মাইল দূরে নিউ ইয়র্কের হাডসন নদীতে এই দুইজনের লাশ কীভাবে এলো তা প্রচন্ড রহস্যের সৃষ্টি করেছে।