• শনিবার, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫২ রাত

ফ্রান্সে বিক্ষোভ, ক্ষতির আশঙ্কায় আইফেল টাওয়ার বন্ধ

  • প্রকাশিত ১১:১৫ রাত ডিসেম্বর ৭, ২০১৮
ফ্রান্স
ছবি: রয়টার্স

"ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা যেহেতু আছে, আমরা কোনো ঝুঁকি নিতে পারি না"

ফ্রান্সে সরকারবিরোধী ইয়েলো ভেস্ট গোষ্ঠীর চলমান দাঙ্গায় ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কায় শনিবার (বাংলাদেশ সময়) আইফেল টাওয়ার বন্ধ রাখা হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

শুক্রবার (বাংলাদেশ সময়) বিবিসিতে প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে এ কথা জানা যায়।

দাঙ্গাকে কেন্দ্র করে আগামীকাল রাজধানী প্যারিসে সাঁজোয়া যানসহ দেশব্যাপী ৮৯ হাজার পুলিশ মোতায়েন রাখা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী এদুয়ার্দ ফিলিপ। দাঙ্গাকালীন সময় পুলিশ রাজধানীর সজ-এলিজি এলাকার দোকানপাট ও রেস্তোরাঁগুলো বন্ধ রাখতে অনুরোধ জানিয়েছে। বেশ কিছু জাদুঘরও একই কারণে বন্ধ রাখা হবে।

বিগত কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ দাঙ্গা পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছে ফ্রান্স সরকার। গত শনিবার দাঙ্গায় তিনজন ব্যক্তি নিহত হন। 

জ্বালানি তেলের কর বৃদ্ধির প্রতিবাদে শুরু হওয়া ওই দাঙ্গার কারণে পরবর্তীতে সরকার কর বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত থেকে সরে এলেও অন্য দাবি তুলে দাঙ্গা চালিয়ে যাচ্ছে বিক্ষোভকারীরা।

উগ্র ডান ও বামপন্থীদের চলমান দাঙ্গায় আগামীকাল প্যারিসে উল্লেখযোগ্য মাত্রায় সহিংসতা হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। তবে তা মোকাবিলায় সরকার প্রস্তুত বলে সংবাদ সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন দেশটির অভ্যন্তরীণমন্ত্রী। 

আইফেল টাওয়ারের পরিচালক জানিয়েছেন, দাঙ্গাকারীদের সহিংস প্রতিবাদের ফলে শনিবার আইফেল টাওয়ারে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা নিশ্চিত করার বিষয়টি হুমকির মুখে পড়েছে।

শহর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, গত সপ্তাহে সজ-এলিজিতে বিখ্যাত স্মৃতিস্তম্ভ 'আর্ক দে ত্রিওম্ফ’ আক্রান্ত হওয়ায় অন্য গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা রক্ষায় তারা বিশেষ ব্যবস্থা নেবে। যেসব স্থাপনা ও প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হবে সেগুলোর মধ্যে ল্যুভর ও ওর্সে জাদুঘর, অপেরা হাউস ও গ্র্যান্ড প্যালে কমপ্লেক্স আছে বলে জানিয়েছেন দেশটির সংস্কৃতিমন্ত্রী ফ্রাঙ্ক রিয়েস্তার। 

সে সাথে, শনিবার বেশ কিছু ফুটবল ম্যাচও স্থগিত করা হয়েছে। ফ্রান্সভিত্তিক রেডিও স্টেশন আরটিএল'কে সংস্কৃতিমন্ত্রী বলেন, "ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা যেহেতু আছে,আমরা কোনো ঝুঁকি নিতে পারি না"।