• সোমবার, মে ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪৯ রাত

বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরি: ফিলিপাইনের সাবেক ব্যাংক ম্যানেজারের কারাদণ্ড

  • প্রকাশিত ০২:২৪ দুপুর জানুয়ারী ১০, ২০১৯
philipine
ফিলিপাইনের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং করপোরেশনের (আরসিবিসি) সাবেক শাখা ব্যবস্থাপক মায়া সান্তোস দেগুইতো। ছবি- রয়টার্স

এর ফলে তাকে ৩২ থেকে ৫৬ বছরের কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরিসহ অর্থ পাচারের আট দফা অভিযোগে ফিলিপাইনের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং করপোরেশনের (আরসিবিসি) সাবেক শাখা ব্যবস্থাপক মায়া সান্তোস দেগুইতোকে কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির আদালত। বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) দেওয়া এই রায়ের প্রতিটি অভিযোগের জন্য তাকে চার থেকে সাত বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এর ফলে তাকে ৩২ থেকে ৫৬ বছরের কারাদণ্ড ভোগ করতে হবে। 

রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, এ ঘটনায় সাজাপ্রাপ্ত প্রথম ব্যক্তি মায়া সান্তোস দেগুইতো। কারাদণ্ড ছাড়াও তাকে ১০৩ মিলিয়ন ডলারের জরিমানা করেছেন আদালত। তবে রায়ে হতাশার কথা জানিয়ে মায়ার আইনজীবী ডেমি কাস্টোডিয়ো জানিয়েছেন, তিনি এ বিষয়ে উচ্চ আদালতের শরণাপন্ন হবেন। আপিলের শুনানি শেষ না হওয়া পর্যন্ত তার মক্কেলকে কারাগারে পাঠানোর সুযোগ নেই। 

আদালতের রায়ে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের ব্যাংক থেকে তহবিল হাতিয়ে নেওয়া এবং অজ্ঞাত ব্যক্তির অ্যাকাউন্টে অর্থ জমা করার বিষয়টি মায়া সন্তোস দেগুইতো নিজেই তত্ত্বাবধান করেছিলেন। তবে নিজের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ বরাবরই অস্বীকার করে আসছেন মায়া সান্তোস দেগুইতো। তার দাবি, তিনি যা কিছু করেছেন তা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশেই করতে হয়েছে।

তবে আদালত মায়া সান্তোস দেগুইতো’র দাবি অবশ্য নাকচ করে দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার আদালতের ২৬ পৃষ্ঠার রায়ে মায়ার এমন দাবিকে বড় ধরনের মিথ্যাচার হিসেবে উল্লেখ করা হয়।

২০১৬ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ ব্যাংকের সিস্টেম হ্যাকড করে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকে বাংলাদেশ ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট থেকে হ্যাকাররা ৮১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অর্থ চুরি করে ফিলিপাইনের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং কর্পোরেশনের (আরসিবিসি) জুপিটার শাখার চারটি অ্যাকাউন্টে স্থানান্তর করে। সেখান থেকে তা দেশটির ক্যাসিনোগুলোতে চলে যায়।