• বুধবার, নভেম্বর ২০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৪:৪৩ বিকেল

রাগ কমান দোকানে গিয়ে

  • প্রকাশিত ০৫:১৬ সন্ধ্যা জানুয়ারী ১৭, ২০১৯
রাগ দোকান চীন
চীনের স্ম্যাশ শপ। ছবি: সংগৃহীত

কারণ যা-ই হোক রাগ কিংবা ক্ষোভ প্রশমনে প্রায় অব্যর্থ ভূমিকা রাখতে পারে ভাঙচুর

অনেক সময়ই মেজাজের ওপর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে মানুষ। একেবারে শান্ত-গোবেচারা ধরনের লোকটাও মুহূর্তেই হয়ে ওঠেন ভয়ঙ্কর। আবার কারণে-অকারণে দীর্ঘদিন ধরে মনে জমে থাকে ক্ষোভ। তবে কারণ যা-ই হোক রাগ কিংবা ক্ষোভ প্রশমনে প্রায় অব্যর্থ ভূমিকা রাখতে পারে 'ভাঙচুর', এ কথা মোটামুটি প্রতিষ্ঠিত। তাই অনেকেই রাগের বশবর্তী হয়ে মেতে ওঠেন ভাঙচুরে।

আর এই ভাঙচুরের বলি হতে হয় ঘরের জিনিসপত্র, কখনওবা প্রিয় কোনও বস্তুকে।

তাই গত সেপ্টেম্বরে চীনের বেইজিংয়ে একটি দোকান খোলা হয়৷ রাগ, ক্রোধ কিংবা হতাশা কমাতে মানুষ 'স্ম্যাশ' নামের দোকানটিতে গিয়ে ইচ্ছেমতো জিনিসপত্র ভাঙতে পারে৷ ইতোমধ্যে দোকানটি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে বলে ডিডব্লিউর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

মূলত: হতাশা, ক্ষোভ কিংবা রাগ কমাতেই সেখানে যান বলে জানিয়েছেন গ্রাহকরা। ভাঙচুরের জন্য সেখানে মদের বোতল, পুরনো টিভি, ফার্নিচার ইত্যাদি রাখা হয়। খরচটাও একেবারে কম না, আধঘণ্টার জন্য গুণতে হয় ২৩ ডলার। প্রতিমাসে গড়ে সেখানে ছয়শ' জন দোকানটিতে যান।