• রবিবার, মে ২৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:২৪ সকাল

অস্ট্রেলিয়ার নাগরিকত্বের জন্য নিজের ভাইকে বিয়ে!

  • প্রকাশিত ০৬:৫৮ সন্ধ্যা ফেব্রুয়ারি ১, ২০১৯
বিয়ে
প্রতীকী ছবি

তাদের পরিবারের মোট ছয় সদস্যের বিরুদ্ধে অভিবাসন দফতরের তদন্ত চলমান

অস্ট্রেলিয়ার নাগরিকত্বের জন্য জালিয়াতি এবং বিয়ের অভিযোগ উঠেছে আপন ভাই-বোন দুই ভারতীয়র বিরুদ্ধে। ধারণা করা হচ্ছে, বর্তমানে তারা অস্ট্রেলিয়াতেই বসবাস করছেন। সম্প্রতি তাদের এক আত্মীয় পুলিশের কাছে অভিযোগ করলে এ বিষয়ে তদন্ত শুরু হয়।

অভিযোগে বলা হয়, অভিযুক্ত নারীর নামে নকল ব্যাংক হিসাব, পাসপোর্ট এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তৈরি করে অস্ট্রেলিয়ার 'স্পাউস ভিসা'র জন্য আবেদন করা হয়।

অভিযোগপত্রের বরাত দিয়ে আমিরাত ভিত্তিক বার্তা সংস্থা খালিজ টাইমস জানায়, ২০১২ সালে ওইসব জাল কাগজপত্র তৈরি করে পাঞ্জাবে বিয়ে করেন তারা।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জয় সিং জানিয়েছেন, অভিযুক্ত ভাই অস্ট্রেলিয়ার স্থায়ী নাগরিকত্ব পেয়েছেন আগেই। জাল নথিপত্র তৈরি করে নিজের বোনকে চাচাতো বোন হিসেবে পরিচয় দেন তিনি। প্রথমে একটি গুরুদুয়ারা (শিখ উপাসনালয়) থেকে বিয়ের সার্টিফিকেট নিয়ে স্থানীয় একটি সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে বিয়ের নিবন্ধন করেন তারা।

ওই ভাই-বোনসহ তাদের পরিবারের মোট ছয় সদস্যের বিরুদ্ধে অভিবাসন অধিদফতরের তদন্ত চলমান বলেও জানান ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

বর্তমানে তারা বাবা, মা, অন্য এক ভাই এবং নানীকে নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় বাস করছেন বলে ধারণা করছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। তাদেরকে ধরতে অভিযান চলছে।

বিদেশি নাগরিকদের স্পাউস ভিসা দেওয়ার ক্ষেত্রে প্রয়োজনে পুঙ্খানুপুঙ্খরূপে যাচাই-বাছাই করে অস্ট্রেলীয় কর্তৃপক্ষ। তবে অন্য কোনও দেশের ইস্যু করা পাসপোর্টে ভুল তথ্যের উল্লেখ থাকলে তা যাচাইয়ের কোনও উপায় নেই।

উল্লেখ্য, গত বছরও ভুয়া বিয়ের সার্টিফিকেট দিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় নাগরিকত্বের আবেদন করলে এক ভারতীয়কে গ্রেফতার করেছিল অস্ট্রেলীয় পুলিশ।