• রবিবার, মে ২৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:২১ সকাল

‘নিম্নবর্ণের’ সহপাঠীর সঙ্গে প্রেম, মেয়েকে খুন করলেন বাবা

  • প্রকাশিত ০৫:১৭ সন্ধ্যা ফেব্রুয়ারি ৫, ২০১৯
হত্যা
প্রতীকী ছবি

মেয়েটির প্রেমিক ছিলেন তথাকথিত নিম্নবর্ণের মানুষ

সহপাঠীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ার ‘অপরাধে’ নিজের মেয়েকে খুন করেছেন এক বাবা। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশে। হতভাগ্য কলেজ ছাত্রীর নাম বৈষ্ণবী (২০)। 

ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, সোমবার (৪ ফেব্রুয়ারি) স্থানীয় সময় সকালে বৈষ্ণবীকে নিজ ঘরেই মৃত অবস্থায় দেখতে পান প্রতিবেশীরা। ইতোমধ্যে বৈষ্ণবীর বাবা ভেঙ্কা রেড্ডিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, মেয়ের সঙ্গে কলেজের সহপাঠীর প্রেমের বিষয়টি মেনে নিতে পারেননি ভেঙ্কা রেড্ডি। এ নিয়ে মেয়ের সঙ্গে বাক-বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে মেয়েকে বেদম মারধর করেন তিনি।

স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তা শ্রীনিবাস রাও জানান, “ভেঙ্কার সন্দেহ ছিল যে, ওই সহপাঠীর সঙ্গে পালিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করছে তার মেয়ে। সে কারণেই রাগের মাথায় মেয়েকে মারধর করেন তিনি। ফরেনসিক রিপোর্ট হাতে পেলে মৃত্যুর কারণ বোঝা যাবে।’’

সূত্রের বরাত দিয়ে এনডিটিভি জানিয়েছে, বৈষ্ণবীর প্রেমিক ছিলেন তথাকথিত নিম্নবর্ণের মানুষ। তাই মেয়েকে প্রেমিকের সঙ্গে যোগাযোগ কিংবা দেখা করতে নিষেধ করেছিলেন তিনি। কিন্তু বাবার এমন নিষেধাজ্ঞা মানতে নারাজ ছিল মেয়ে।

ভারতীয় পুলিশ আরও জানায়, ‘প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে বিয়ে করতে পারে মেয়ে’ শুধুমাত্র এমন সন্দেহ থেকেই বৈষ্ণবীকে মারধর করেন তার বাবা।