• রবিবার, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:২৪ রাত

দেশে ফিরতে চান আইএসে যোগ দেওয়া ব্রিটিশ বাংলাদেশি

  • প্রকাশিত ০৫:০১ সন্ধ্যা ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৯
আইএস
ছবি: সংগৃহীত

আইএসে যোগ দেয়ায় তার কোনো অনুশোচনা না থাকলেও অনাগত সন্তানের ভবিষ্যতের জন্য ফিরে যেতে চায় শামীমা

শামীমা বেগম। বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত এই ব্রিটিশ নাগরিক ২০১৫ সালে ১৫ বছর বয়সে ইসলামিক স্টেট (আইএস) এ যোগ দেয়ার উদ্দেশ্যে তিন বান্ধবী মিলে ব্রিটেন ছেড়ে সিরিয়ায় পালিয়ে আসেন। সম্প্রতি টাইমসে দেয়া এক সাক্ষাতকারে শামীমা জানান, আইএসে যোগ দেয়ায় তার কোনো অনুশোচনা না থাকলেও  অনাগত সন্তানের ভবিষ্যতের জন্য বিট্রেনে ফিরে যেতে চান তিনি।

ব্রিটেন থেকে পালিয়ে আইএসে যোগ দেয়া অপর দুই কিশোরীর মধ্যে কেবল শামীমাই এখনো বেঁচে আছেন। ১৯ বছর বয়সী শামীমা বলেন, “আমি জানি আমার পরিবার আমাকে নিয়ে কতটা ভাবে। তবে তারও আগে আমার সন্তানের নিরাপত্তার বিষয়টি অনেক বেশি ভাবায় আমাকে।” 

এর আগে তার দুই সন্তানের মৃত্যুর বিষয়ে বলেন, “হাসপাতালগুলোতেও পর্যাপ্ত কোনো চিকিৎসা ব্যবস্থা নেই। লোকবলও নেই বলে আমি নিজ চোখে আমার সন্তানদের মৃত্যু দেখেছি। এজন্য আমি যেকোনো কিছু মেনে নিতে প্রস্তুত।” 

এসময় তিনি বলেন, “আমার মনেহয় না, আইএসদের সংগঠনটি  আর ঘুরে দাঁড়াতে পারবে।”

এদিকে শামীমার ব্রিটেনে ফিরতে চাওয়ার বিষয়ে ব্রিটিশ নিরাপত্তামন্ত্রী বেন ওয়ালাসি বলেন, “ব্রিটিশ জনগণ সে যেই হোক না কেন, প্রত্যেকেরই অধিকার রয়েছে নিজ দেশে ফেরার। তবে সিরিয়ায় কোনো ব্রিটিশ কূটনৈতিক না থাকায় ব্রিটেনে যাওয়ার জন্য তাকে নিজ দায়িত্বে প্রথমে ইরাক বা তুরস্কে পৌঁছাতে হবে।” 

যদিও আইএসে যোগ দেওয়ার পরও তা নিয়ে কোনো অনুশোচনা কাজ না করাটাকে ‘যথেষ্ট উদ্বেগজনক’ বলে মনে করছেন তিনি।