• মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৫ রাত

জঙ্গি শামীমার সন্তানকে ব্রিটেনে আনতে চায় পরিবার

  • প্রকাশিত ০৫:৪৮ সন্ধ্যা ফেব্রুয়ারি ২২, ২০১৯
জঙ্গি শামীমা
সদ্যজাত সন্তানের সঙ্গে জঙ্গি শামীমা। ছবি: ডেইলি মেইল

পাঁচদিন বয়সী জেরাহ'র নাগরিকত্ব বাতিল করতে চাইলে সরকারকে প্রমাণ করতে হবে যে, সে ব্রিটেনের জন্য হুমকিস্বরূপ

জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)-এর মতাদর্শে উদ্বুদ্ধ হয়ে সিরিয়ায় পাড়ি জমানো বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক শামীমা বেগমকে ব্রিটেনে ফেরার অনুমতি দেয়নি দেশটির সরকার। তবে তার সদ্যজাত সন্তানকে লন্ডনে ফিরিয়ে এনে লালন-পালনের অনুমতি চেয়েছে পরিবার।

গত সোমবার শামীমার ব্রিটিশ পাসপোর্ট বাতিল করে তাকে দেশে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেয় দেশটির সরকার। কিন্তু তার পারিবারিক আইনজীবী সিরিয়ার শরণার্থী শিবিরে গিয়ে শামীমার সঙ্গে দেখা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। বর্তমানে পাঁচদিন বয়সী সন্তান জেরাহ'র সঙ্গে সেখানে রয়েছেন জঙ্গি শামীমা।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম গার্ডিয়ান জানায়, মামলা চলাকালীন সময়ে শামীমার সদ্যজাত সন্তানকে নিজেদের কাছে রাখতে সব ধরনের আইনি এবং বাস্তবিক প্রক্রিয়া চালিয়ে যাবে তার পরিবার।

যদিও এর আগে ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ এবং দেশটির আইন বিশেষজ্ঞরা বলেছিলেন, মায়ের নাগরিকত্ব বাতিল প্রক্রিয়াধীন হলেও জেরাহ একজন ব্রিটিশ নাগরিক। কারণ তার জন্মের সময় শামীমার নাগরিকত্বের বিষয়টি ছিল প্রশ্নাতীত।

জেরাহ'র নাগরিকত্ব বাতিল করতে চাইলে সরকারকে প্রমাণ করতে হবে যে, সে ব্রিটেনের জন্য হুমকিস্বরূপ।

উল্লেখ্য, ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের জবাবে মঙ্গলবার শামীমা জানায়, তার জিহাদি স্বামীর সঙ্গে থাকা দুই শিশুই অজানা রোগে ভুগে মারা গেছে।

পাশাপাশি, তার কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা চেয়ে 'শোধরানোর ইচ্ছাও' প্রকাশ করেছে ১৯ বছর শামীমা বেগম। পূর্ব লন্ডনের অধিবাসী এই নারী ১৫ বছর বয়সে কথিত খেলাফতের জন্য সিরিয়ায় যুদ্ধরত আইএস-এ যোগ দেয়।