• মঙ্গলবার, মে ২১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:৩০ সকাল

পম্পেও: ইসরায়েলকে বাঁচাতে ঈশ্বর ট্রাম্পকে পাঠিয়েছেন

  • প্রকাশিত ০১:৩৬ দুপুর মার্চ ২৩, ২০১৯
মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও।
মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। ছবি : রয়টার্স

গত জানুয়ারিতে একটি ধর্মীয় টেলিভিশনে হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি সারাহ স্যান্ডার্স বলেছিলেন, "ঈশ্বর চেয়েছিলেন ট্রাম্প যেন প্রেসিডেন্ট হন"।

ইরানের হাত থেকে ইসরায়েলকে রক্ষার করতেই হয়তো ট্রাম্পকে ঈশ্বর পাঠিয়েছেন। বৃহস্পতিবার ইসরায়েল সফরকালে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও তার খ্রিস্টান ব্রডকাস্টিং নেটওয়ার্ক-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এমন মন্তব্য করেন।

মাইক পম্পেও বলেন, "একজন খ্রিস্টান হিসেবে আমার বিশ্বাস ইরানের হাত থেকে ইহুদিদের রক্ষায় ট্রাম্পই পারবে সহায়তা করতে"।

যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স এবং সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল জেফ সেশন্স তাদের দাফতরিক ভাষণেও খ্রিস্টানদের ধর্মগ্রন্থ বাইবেল থেকে উদ্ধৃতি দেন।

হোয়াইট হাউসের গত ১০০ বছরের ইতিহাসে ট্রাম্পের আমলেই প্রথমবারের মতো সেখানে একটি 'বাইবেল অধ্যয়ন চক্র' স্থাপন করা হয়। প্রতি বুধবার এই বাইবেল অধ্যয়ন চক্রের গোপন বৈঠক বসে। জানা গেছে, বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাবান কিছু মানুষ এর সদস্য। সেখানে তারা ঈশ্বর সম্পর্কে আলোচনা করেন। তবে ওয়াশিংটন ডিসির একটি সম্মেলন কক্ষে হয় জানা গেলেও এই বৈঠকটি কোথায় হয়, সেটি নির্দিষ্ট করে প্রকাশ করা নিষেধ। কারণ মার্কিন গোয়েন্দা দফতর চায় না এটি প্রকাশ পাক। তবে এর সদস্যরা অবশ্য জানেন, তাদের কোথায় যেতে হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সও এই বৈঠকের সদস্য। ট্রাম্পের মন্ত্রিসভার অন্তত ১০ জন প্রভাবশালী সদস্য রয়েছেন এই অধ্যয়ন চক্রে। যার যখন সময় হয় তারা তখন হাজির হন এই সাপ্তাহিক বৈঠকে। প্রতিটি বৈঠক চলে এক থেকে দেড় ঘন্টা ধরে।

উল্লেখ্য, এর আগে গত জানুয়ারিতে একটি ধর্মীয় টেলিভিশনে হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি সারাহ স্যান্ডার্স বলেছিলেন, "ঈশ্বর চেয়েছিলেন ট্রাম্প যেন প্রেসিডেন্ট হন"।