• রবিবার, জুলাই ২১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:১৮ রাত

গ্রেফতার এড়াতে পেরুর সাবেক প্রেসিডেন্টের আত্মহত্যা

  • প্রকাশিত ০৪:৫৪ বিকেল এপ্রিল ১৮, ২০১৯
অ্যালান গার্সিয়া
পেরুর সাবেক প্রেসিডেন্ট অ্যালান গার্সিয়া। ছবি: এএফপি (ফাইল ছবি)

তার শাসনামলে পেরুর ব্যাপক উন্নয়ন হওয়ায় তাকে ‘ল্যাটিন আমেরিকার জন এফ কেনেডি’ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়

গ্রেফতার এড়াতে আত্মহত্যা করেছেন পেরুর সাবেক প্রেসিডেন্ট অ্যালান গার্সিয়া (৬৯)। বুধবার দুর্নীতির অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করতে পুলিশ তার বাসায় গেলে নিজের মাথায় গুলি করে বসেন দেশটির বিশিষ্ট এই রাজনীতিবিদ।

গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে তার মৃত্যু হয় বলে বার্তা সংস্থা এএফপির একটি খবরে বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, অ্যালান গার্সিয়ার শাসনামলে পেরু উন্নতির শিখরে পৌঁছায়, সেজন্য তাকে ‘ল্যাটিন আমেরিকার জন এফ কেনেডি’ নামেও আখ্যা দেয়া হয়ে থাকে। বিশেষ ল্যাটিন আমেরিকান এই দেশটির অর্থনীতির ব্যাপক উন্নয়ন হয় তার শাসনামলে।

দুই মেয়াদে পেরুর প্রেসিডেন্ট ছিলেন তিনি। ১৯৮৫ সাল থেকে ১৯৯০ সালে প্রথম মেয়াদে এবং ২০০৬ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত রাষ্ট্রপ্রধানের দায়িত্বপালন করেন দেশটির এই প্রভাবশালী নেতা। এর মধ্যে দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় থাকার সময় ব্রাজিলের জায়ান্ট নির্মাণ প্রতিষ্ঠান ‘ওদেব্রেচ’ থেকে অ্যালান গার্সিয়া মোটা অঙ্কের ঘুষ নেন বলে অভিযোগ আনা হয়। তবে ঘুষের অভিযোগ অস্বীকার করেন দুইবারের প্রেসিডেন্ট।

অ্যালান গার্সিয়া ঘুষের অভিযোগ অস্বীকার করলেও গত সপ্তাহ তাকে গ্রেফতারের নির্দেশ দেন দেশটির। এজন্য বুধবার পুলিশ তাকে গ্রেফতার করতে গিয়েছিল কিন্তু পুলিশ তার বাসায় পৌঁছালে তিনি নিজের মাথায় গুলি করেন। 

এদিকে অ্যালান গার্সিয়ার এমন মর্মান্তিক মৃত্যুতে পেরুর বর্তমান প্রেসিডেন্ট মার্টিন ভিজকারাসহ সকল রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব শোক প্রকাশ করেছেন।