• মঙ্গলবার, নভেম্বর ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০২:৩১ দুপুর

গাধার পিঠে চড়ে মনোনয়নপত্র জমা, অতঃপর প্রার্থিতা বাতিল!

  • প্রকাশিত ০৯:৪৩ রাত মে ৭, ২০১৯
গাধা
ছবি: এএফপি

তবে তিনি বলেন, ‘একটি ভাল সমাজ এবং দেশ নির্মাণের জন্য সাধারণ মানুষ গাধার মতো খেটে যায়। কিন্তু রাজনীতিবিদরা কেবল নিজেদের জন্যই ভাবে। আমরা গাধার মতোই সুন্দর এবং পরিশ্রমী।’

ভারতের জাতীয় নির্বাচনে প্রার্থিতা করতে ইচ্ছুক এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ‘পশুর ওপর নির্মম আচরণের’ অভিযোগ এনেছে দেশটির পুলিশ। মনোনয়ন জমা দিতে যাওয়ার সময় গাধার পিঠে সওয়ার হয়েছিলেন অভিযুক্ত মনি ভূষণ শর্মা।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, গত ২৯ এপ্রিল ছোট্ট একটি গাধার পিঠে চড়ে বিহার প্রদেশের জেহানাবাদ শহরে নিজের মনোনয়নপত্র জমা দিতে যান মনি।

শহরের পুলিশ প্রধান শ্রী মনীষ এএফপিকে বলেন, ‘‘পশুর ওপর নির্মমতা রোধে ওই প্রার্থীর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।’’ তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানাননি তিনি।

যদিও ভারতে গাধা কিংবা খচ্চরের পিঠে চড়ার বিষয়টি বেআইনি নয়।

পশুর ওপর নির্মমতা রোধে দেশটির আইনে শারীরিকভাবে আঘাত, হিংস্রতা অথবা পরিত্যাগের মতো বিষয়গুলোকে অপরাধ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। এসব অপরাধ প্রমাণিত হলে প্রাথমিকভাবে জরিমানা অথবা সর্বোচ্চ সাত বছর পর্যন্ত কারাবাসের বিধান রয়েছে।

তবে এ ‘নির্মমতার’ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন অভিযুক্ত মনি শর্মা। তার দাবি, নির্দিষ্ট সময়ে জনগণের প্রতি রাজনীতিবিদদের প্রতিশ্রুতিকে প্রতীকীরূপে তুলে ধরতেই তিনি এমনটা করেছেন।

তিনি বলেন, ‘‘একটি ভাল সমাজ এবং দেশ নির্মাণের জন্য সাধারণ মানুষ গাধার মতো খেটে যায়। কিন্তু রাজনীতিবিদরা কেবল নিজেদের জন্যই ভাবে। আমরা গাধার মতোই সুন্দর এবং পরিশ্রমী।’’

উল্লেখ্য, বিগত চারটি নির্বাচনেও প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছিলেন মনি। তবে জিততে পারেননি একবারও। সর্বশেষ এই নির্বাচনে তার প্রার্থিতাই বাতিল হয়ে যায়।

গত মাসে ভারতীয় পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে নির্বাচন শুরু হয়েছে। ছয় সপ্তাহকালব্যাপী এই নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা হতে পারে আগামী ২৩ মে।