• রবিবার, জুলাই ২১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৩:৩৭ বিকেল

তারাবির সময় লন্ডনের মসজিদের সামনে গুলি

  • প্রকাশিত ১২:১২ দুপুর মে ১০, ২০১৯
পুলিশি নিরাপত্তা
ঘটনার পর ইলফোর্ডের সেভেন কিংস মসজিদ এলাকায় প্রবেশ ও চলাচল নিষিদ্ধ করেছে লন্ডন পুলিশ। ছবি: সৌজন্যে

তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি 


মসজিদে তারাবির নামাজের সময় বাংলা‌দেশি অধ্যু‌ষিত পূর্ব লন্ড‌নের ইল‌ফো‌র্ডের সে‌ভেন কিংস মস‌জি‌দে গুলি চালানোর ঘটনা ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় রাত ১১ টার দিকে এই ঘটনা ঘটে বলে বিবিসির একটি খবরে জানানো হয়। তবে, এই ঘটনায় কেউ হাতাহত হয়নি বলে লন্ডন পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

ঘটনার পর নিরাপত্তার খাতিরে ওই এলাকায় ব্যাপক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সাময়িকভাবে বনব্ধর করে দেয়া হয়েছে মসজিদটি। তবে, এই ঘটনার সাথে জঙ্গি হামলার কোনো সম্পর্ক নেই বলেই ধারণা করছে লন্ডন পুলিশ। 

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে ওই মসজিদে তারাবির নামাজ চলাকালীন সময়ে অস্ত্রধারী এক ব্যক্তি ওই মসজিদে প্রবেশ করতে গেলে মসজিদের মুসল্লিরা তাকে জোর করে মসজিদের বাইরে বের করে দেন। এসময় মসজিদের বাইরে একটি গুলির শব্দ পাওয়া যায়। গুলির পরপরই ওই এলাকা থেকে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে অস্ত্রধারী ওই ব্যক্তি। তবে, এতে কেউ হতাহত হয়নি। 

ঘটনা প্রসঙ্গে ওই মসজিদে তারাবির নামাজ পড়তে যাওয়া ইব্রাহিম হোসেন (১৯) বলেন, "মসজিদটি ৩ ভাগে বিভক্ত। আমি উপর তলায় নামাজ পড়ছিলাম। হঠাৎ করেই আমি একটি বিকট শব্দ শুনতে পাই। তবে, আমি নামাজ পড়া থামাইনি কারণ আমি ভেবেছিলাম কেউ পটকা জাতীয় কিছু ফাটিয়েছে। পরে আমি জানতে পারি যে এই ঘটনা ঘটেছে"।

এদি‌কে লন্ডনের মুসল্লিদের মধ্যে এই ঘটনায় উদবেগ ছড়িয়ে পড়েছে। তবে, সতর্ক অবস্থানে রয়েছে দেশটির আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। অস্ত্রধারী ওই ব্যক্তিকে ধরার জন্য তদন্তে নেমেছে তারা। ঘটনার পর ইলফোর্ডের সেভেন কিংস মসজিদ এলাকায় প্রবেশ ও চলাচল নিষিদ্ধ করেছে লন্ডন পুলিশ।

উল্লেখ্য, গত ১৫ মার্চ নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুইটি মসজিদে জুম্মার নামাজের সময় এক অস্ত্রধারীর হামলায় ৪৯ জনের মৃত্যু হয়।