• সোমবার, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:২৪ রাত

পাকিস্তানে পাঁচ তারকা হোটেলে হামলা: ৩ হামলাকারীই নিহত

  • প্রকাশিত ০১:০৩ দুপুর মে ১২, ২০১৯
পাকিস্তান
শনিবার স্থানীয় সময় বিকেল পাঁচটার দিকে পাকিস্তানের বালুচিস্তান প্রদেশের বন্দরনগরী গোয়াদারে বিলাসবহুল পার্ল কন্টিনেন্টাল হোটেলে তিনজন বন্দুকধারী হামলা করে। ছবি: সংগৃহীত

শনিবার স্থানীয় সময় বিকেল পাঁচটার দিকে পাকিস্তানের বালুচিস্তান প্রদেশের বন্দরনগরী গোয়াদারে বিলাসবহুল পার্ল কন্টিনেন্টাল হোটেলে হামলা চালায় বন্দুকধারীরা

পাকিস্তানের পাঁচ তারকা হোটেলে হামলাকারী তিনজনই নিহত হয়েছে বলে দেশটির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। এই হামলায় হোটেলের একজন নিরাপত্তা রক্ষীর মৃত্যুও নিশ্চিত করা হয়েছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বিবিসি।

শনিবার স্থানীয় সময় বিকেল পাঁচটার দিকে পাকিস্তানের বালুচিস্তান প্রদেশের বন্দরনগরী গোয়াদারে বিলাসবহুল পার্ল কন্টিনেন্টাল হোটেলে তিনজন বন্দুকধারী হামলা করে । এর পরপরই নিরাপত্তা বাহিনী হোটেলটিকে ঘিরে ফেলে বলে জানানো হয়েছে ওই প্রতিবেদনে।

কর্মকর্তারা বলেছেন, বন্দুকধারীরা হোটেলের দ্বিতীয় তলার একটি অংশে অবস্থান নিয়ে অনেকটা সময় ধরে গুলি ছুঁড়েছে। নিরাপত্তা বাহিনীও পাল্টা অবস্থান নিয়ে অভিযান চালালে শেষপর্যন্ত বন্দুকধারী তিনজনই নিহত হয়।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী বালুচিস্তান লিবারেশন আর্মি হামলার দায় স্বীকার করে বলেছে, চীনা এবং অন্য বিদেশী বিনিয়োগকারীদের তারা টার্গেট করেছিল।

যে এলাকায় হোটেলে এই হামলা হয়েছে, সেই গোয়াদার এলাকায় চীন শত শত কোটি ডলার বিনিয়োগ করেছে। এই সশস্ত্র গোষ্ঠীটি চীনা বিনিয়োগের বিরুদ্ধে। তাদের বক্তব্য হচ্ছে, চীন সেখানে যে বিনিয়োগ করছে, তাতে স্থানীয়দের কোনো লাভ হবে না। প্রসঙ্গত, পার্ল কন্টিনেন্টাল হোটেলেও নিয়মিত চীনাসহ অনেক বিদেশী থাকতেন।

তবে হোটেলের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, রমযানের কারণে অতিথি কম ছিল এবং যে ক'জন অতিথি ছিল, তাদের দ্রুত নিরাপদে সরিয়ে নেয়া সম্ভব হয়েছিল।

পার্ল কন্টিনেন্টাল হোটেলে শনিবার বিকেলে একদল বিদেশী বিনিয়োগকারির সাথে পাকিস্তান সরকারের উচ্চপর্যায়ের কর্মকর্তাদের একটা বৈঠক ছিল।

বন্দুকধারীরা ঐ বৈঠকে অংশগ্রহণকারীদের টার্গেট করে হামলা চালিয়েছিল। হোটেলের প্রবেশ পথে একজন নিরাপত্তা রক্ষী হামলাকারীদের বাধা দেয়, তখন তারা ঐ নিরাপত্তা রক্ষীকে হত্যা করে হোটেলে ঢুকে যায়।

তবে অল্প সময়ের মধ্যেই নিরাপত্তা বাহিনী হোটেলে এসে অবস্থান নিলে তাদের সাথে বন্দুকধারীদের অনেক সময় ধরে গোলাগুলি হয়।