• রবিবার, ডিসেম্বর ০৮, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:৪৭ রাত

ইরানের ওপর ট্রাম্পের ‘গুরুতর’ নিষেধাজ্ঞা

  • প্রকাশিত ১২:১৩ দুপুর জুন ২৩, ২০১৯
ডোনাল্ড ট্রাম্প ও হাসান রুহানি
ছবি: সংগৃহীত

ট্রাম্প বলেন, ‘যদি ইরান একটি সমৃদ্ধ জাতি হতে চায়... তবে সেটি আমার কাছে ঠিক আছে। কিন্তু তারা তা কখনোই হতে পারবে না যদি না তারা পাঁচ-ছয় বছর ধরে পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি করতে থাকে’

পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচিতে বাধা দিতে ইরানের ওপর আরও ‘গুরুতর’ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ইরান তাদের অবস্থান থেকে সরে না আসা পর্যন্ত অর্থনৈতিক চাপ বজায় রাখা হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

শনিবার ওয়াশিংটনে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘আমরা অতিরিক্ত নিষেধাজ্ঞা আরোপ করছি। কিছু ক্ষেত্রে খুব দ্রুত তা করা হবে।’

বিবিসি বাংলার প্রতিবেদনে বলা হয়, পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে আন্তর্জাতিক চুক্তির সীমা লঙ্ঘন সম্পর্কিত ইরানের ঘোষণা আসার পরই এমন কথা জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করার সীমা বিষয়ে বিশ্বের পরাশক্তিগুলোর সাথে ইরানের চুক্তি হয়েছিল ২০১৫ সালে। সে অনুযায়ী কিছু বিষয়ে নিষেধাজ্ঞাও তুলে নেয়া হয়েছিল ও ইরানকে তেল রপ্তানির অনুমতি দেয়া হয়েছিল।

কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র গত বছর চুক্তিটি প্রত্যাহার করে এবং নিষেধাজ্ঞাও জারি করে। যার ফলে ইরান আবারো অর্থনৈতিক মন্দার সম্মুখীন হয় এবং তার মুদ্রার মান হ্রাস পায়।

ট্রাম্প বলেন, ‘যদি ইরান একটি সমৃদ্ধ জাতি হতে চায়... তবে সেটি আমার কাছে ঠিক আছে। কিন্তু তারা তা কখনোই হতে পারবে না যদি না তারা পাঁচ-ছয় বছর ধরে পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি করতে থাকে।’

২০১৬ সালের নির্বাচনী স্লোগানের মত করে তিনি বলেন, ‘ইরানকে আবার মহান বানান।’ এসব কথার পরবর্তীতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট আবার টুইট করে দেশটির ওপর ‘বাড়তি কঠোর নিষেধাজ্ঞা’ জারির ঘোষণা দেন, যা সোমবার থেকে কার্যকর হবে।