• সোমবার, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৭:০০ রাত

যুক্তরাজ্যের নতুন প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন বরিস জনসন

  • প্রকাশিত ০৬:২৮ সন্ধ্যা জুলাই ২৩, ২০১৯
যুক্তরাজ্য
কনজারভেটিভ পার্টির নতুন নেতা বরিস জনসন। ছবি: রয়টার্স

নির্বাচিত হয়ে বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে এবং তার মূল প্রতিদ্বন্দ্বী জেরেমি হান্টের প্রতি সম্মান জানিয়েছেন বরিস জনসন। তিনি জানান, জেরেমির দারুণ কিছু পরিকল্পনা আছে। সেগুলো নিয়ে নিজেও কাজ করতে চান। 

বর্তমান পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেরেমি হান্টকে টপকে যুক্তরাজ্যের ক্ষমতাসীন দল কনজারভেটিভ পার্টির নতুন নেতা নির্বাচিত হয়েছেন দেশটির সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন।

২৩ জুলাই, মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল ১১টা ৪৫ মিনিটের দিকে চারদফা ভোটের পর বরিস জনসন নতুন নেতা নির্বাচিত হন।

দেশটির রীতি অনুযায়ী ক্ষমতাসীন দলের শীর্ষ নেতাই প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন। সেহিসেবে বুধবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন বরিস জনসন।

এর আগে স্থানীয় সময় ২২ জুলাই, সোমবার বিকেল পর্যন্ত জেরেমি হান্ট ও বরিস জনসনের মধ্যে যেকোনো একজনকে দলনেতা হিসেবে বেছে নেওয়ার জন্য ভোট দেন কনজারভেটিভ পার্টির নিবন্ধিত সমর্থকরা।

ভোটের ফল ঘোষণার দেখা যায়, বরিস জনসন ৯২ হাজার ১৫৩ ভোট পেয়ে বিপুল ব্যবধানে জয়ী হয়েছেন। অপরদিকে বর্তমান পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেরেমি হান্ট পেয়েছেন ৪৬ হাজার ৬৫৬টি।

ব্রেক্সিট ইস্যুতে সমঝোতায় পৌঁছাতে ব্যর্থ হয়ে গত মে মাসে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছিলেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। ৭ জুন যুক্তরাজ্যের ক্ষমতাসীন দলের নেতার পদ থেকে থেরেসার সরে দাঁড়ানোর পর নতুন নেতা নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু করে রক্ষণশীল দল। গত ১৩ জুন থেকে শুরু চার দফার ভোটের প্রায় সবগুলোতেই এগিয়ে ছিলেন বরিস জনসন।

নির্বাচিত হয়ে বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে এবং তার মূল প্রতিদ্বন্দ্বি জেরেমি হান্টের প্রতি সম্মান জানিয়েছেন বরিস জনসন। তিনি জানান, জেরেমির দারুণ কিছু পরিকল্পনা আছে। সেগুলো নিয়ে নিজেও কাজ করতে চান। এ ছাড়া বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মেকেও তাদের দেশের প্রতি অবদানের জন্য সম্মান জানান।

ইতোমধ্যে বরিস জনসনকে অভিনন্দন জানিয়েছেন থেরেসা মে। এক টুইট বার্তায় তিনি বলেন, “কনজারভেটিভদের নেতা নির্বাচিত হওয়ায় বরিস জনসনকে অনেক অভিনন্দন। এখন আমাদের সবাইকে মিলে ব্রেক্সিট ইস্যুতে এমনভাবে কাজ করতে হবে যেন তা সর্বোচ্চ ফলপ্রসূ হয়। আর জেরেমি করবিনকে এসবের বাইরে রাখতে হবে। আপনার সরকারের প্রতি পূর্ণ সমর্থন আছে আমার।”