• বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৮ রাত

এখন থেকে একাই ভ্রমণ করতে পারবেন সৌদি নারীরা

  • প্রকাশিত ০২:০০ দুপুর আগস্ট ২, ২০১৯
সৌদি নারী
এখন থেকে পাসপোর্টের জন্য পুরুষ অভিভাবকের অনুমতি লাগবে না সৌদি নারীদের। ফাইল ছবি।

এই আইন কার্যকর হওয়ার আগ পর্যন্ত, পাসপোর্ট বানানো বা দেশের বাইরে ভ্রমণের ক্ষেত্রে সৌদি নারীদের জন্য স্বামী, পিতা বা যে কোনো পুরুষ অভিভাবকের অনুমতি নেয়া বাধ্যতামূলক ছিল

এখন থেকে কোনো পুরুষ অভিভাবক ছাড়াই স্বাধীনভাবে চলাফেরা করতে পারবেন সৌদি আরবের নারীরা। শুক্রবার এক রাজকীয় ফরমান জারির মধ্যদিয়ে দেশটিতে নতুন এই আইন জারি করা হয়েছে বলে বিবিসি'র একটি প্রতিবেদনে বলা হয়।

ফরমানে বলা হয়, ২১ বছরের বেশি বয়সী যে কোনো নারী এখন থেকে কোনো পুরুষ অভিভাবকের অনুমোদন ছাড়াই পাসপোর্টের জন্য আবেদন করতে পারবেন। আর এজন্য তাকে কোনো পুরুষ অভিভাবকের অনুমতি হবে না ।

এর ফলে এখন থেকে পুরুষদের মতোই প্রাপ্তবয়স্ক সৌদি নারীরাও দেশে ও দেশের বাইরে স্বাধীনভাবে ভ্রমণ করতে পারবেন। এছাড়াও নতুন এই আইনে সৌদি নারীদের শিশুর জন্মের নিবন্ধন করা এবং বিয়ে করা কিংবা বিয়ে বিচ্ছেদের ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। এর পাশাপাশি সৌদি আরবের নারীদের কর্মসংস্থানের সুযোগ বাড়ানোর কথাও বলা হয়েছে ওই রাজকীয় ফরমানে।

নতুন এই আইনে বলা হয়, সব নাগরিকেরই কর্মসংস্থানের অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। লিঙ্গ, বয়স বা শারীরিক অক্ষমতার ভিত্তিতে কোনো ধরনের বৈষম্য তৈরি করার সুযোগ নেই।

এই আইন জারির ফলে সৌদি নারীরা এখন অনেকটাই পুরুষের সমকক্ষ হিসেবে বিবেচিত হবেন।  

উল্লেখ্য, এই আইন কার্যকর হওয়ার আগ পর্যন্ত,  পুরুষ অভিভাবকের অনুমতি ছাড়া পাসপোর্ট পেতেন না সৌদি নারীরা। এমনকি তারা একা কোথাও ঘুরতেও যেতে পারতেন না। সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান সাম্প্রতিক সময়ে দেশটিতে নারীদের মর্যাদার উন্নয়নে কাজ করছেন। এরই ধারাবাহিকতায় এই আইনটি জারি করা হলো।