• বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৮ রাত

রামমন্দির নির্মাণে জমিসহ সোনার ইট দেবেন ‘মোগল বংশধর’

  • প্রকাশিত ১০:৪৩ রাত আগস্ট ২০, ২০১৯
ভারত
মোগল সম্রাট বাহাদুর শাহ জাফরের শেষ উত্তরাধিকার দাবি করা প্রিন্স হাবিবুদ্দিন তুসি

হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের আবেগ–অনুভূতিকে সম্মান করেন বলেই তিনি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তাছাড়া তারও বিশ্বাস, বাবরি মসজিদের আগে সেখানে রামমন্দির ছিল। 

ভারতের উত্তর প্রদেশের অযোধ্যার বাবরি মসজিদের স্থান নিয়ে বিতর্ক বহুদিনের। হিন্দুত্ববাদীদের দাবি সেখানে রামমন্দির ছিল। তাই ১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর মসজিদটিকে ধ্বংস করে তারা। হিন্দুত্ববাদীদের ইচ্ছা সেখানে রামমন্দির নির্মাণ করা হবে। এ নিয়ে মামলা চলছে দেশটির সবোর্চ্চ আদালতে। এরইমধ্যে বাবরি মসজিদের মামলা নতুন করে আলোচনায় এসেছে মোগল সম্রাট বাহাদুর শাহ জাফরের শেষ উত্তরাধিকার দাবি করা প্রিন্স হাবিবুদ্দিন তুসি’র এক মন্তব্যে।

গত রবিবার হাবিবুদ্দিন তুসি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট যদি বাবরি মসজিদের ওই জমি তাকে দিয়ে দেন তবে তিনি ওই জমি রামমন্দির নির্মাণের জন্য দান করবেন।

একইসঙ্গে তুসি জানান, হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের আবেগ–অনুভূতিকে সম্মান করেন বলেই তিনি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তাছাড়া তারও বিশ্বাস, বাবরি মসজিদের আগে সেখানে রামমন্দির ছিল। এ জন্য রামমন্দির নির্মাণ করতে ওই জায়গাসহ একটি সোনার ইটও দান করবেন তিনি।

এদিকে ১৫২৯ সালে মোগল সম্রাট বাবর কর্তৃক নির্মিত বাবরি মসজিদের জায়গা নিজের দাবি করে আদালতে একটি আবেদনও করেছেন তুসি। তার যুক্তি, মোগল সম্রাজ্যের শেষ উত্তরাধিকারী তিনি। অতএব ওই জায়গা তারই পাওয়া কথা। তাছাড়া অন্যদের কাছে ওই জায়গার বৈধ মালিকানার কোনো কাগজপত্রও নেই।