• মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১০, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৫ রাত

প্রয়োজনে নিজে সেখানে যাবো, জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে ভারতের প্রধান বিচারপতি

  • প্রকাশিত ০৪:৩৮ বিকেল সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯
কাশ্মীর
উত্তাল কাশ্মীর। ছবি: এএফপি

দেশটির প্রধান বিচারপতি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, উপত্যকায় স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরিয়ে আনতে প্রতিটি পদক্ষেপ যেন ভারতের সংবিধান মেনে করা হয়

ভারতের সংবিধানের ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের পর এবার জম্মু-কাশ্মীরে যেতে চান দেশটির প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। 

সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) জম্মু ও কাশ্মীর সংক্রান্ত একাধিক মামলার শুনানি হয়। তারমধ্যে একটি মামলায় অভিযোগ তোলা হয়, জম্মু-কাশ্মীরের পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে, হাইকোর্টে মামলা পর্যন্ত করার পরিস্থিতি নেই। সেই মামলাতেই প্রধান বিচারপতি বলেন, “প্রয়োজন হলে আমি নিজে গিয়ে সেখানকার পরিস্থিতি দেখে আসব।” খবর আনন্দবাজারের।

সোমবার শুনানি হওয়া মামলাগুলোর মধ্যে একটি মামলায় সুপ্রিমকোর্টের বর্ষীয়ান এক আইনজীবী আদালতকে বলেন, “৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের পর জম্মু-কাশ্মীরের পরিস্থিতি এমনই যে সেখানে হাইকোর্টে মামলা করার মতো পরিস্থিতিও নেই। তাই সেখানকার শিশুদের গৃহবন্দি রাখার অভিযোগ তুলে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হাইকোর্টে না গিয়ে সরাসরি সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে।”

এরপরই প্রধান বিচারপতি বলেন, দরকার হলে তিনি নিজে কাশ্মীরে গিয়ে পরিস্থিতি দেখে আসবেন। অর্থাৎ হাইকোর্টে মামলা করার পরিস্থিতি রয়েছে কিনা, তা নিজে খতিয়ে দেখবেন তিনি। তবে অভিযোগ মিথ্যে হলে তার ফল ভোগ করতে হবে— এই ভাষায় আইনজীবীকে সাবধান করে দেন প্রধান বিচারপতি।

যদিও ভারতের সরকার অবশ্য মনে করছে, পরিস্থিতি ততটা খারাপ নয় বরং আগের চেয়েও অনেক ভাল। দেশটির কেন্দ্রীয় সরকারের যুক্তি, ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের পর জম্মু-কাশ্মীরে একটি গুলিও ছুড়তে হয়নি পুলিশ বা নিরাপত্তা বাহিনীকে।

প্রধান বিচারপতি হুঁশিয়ারি দেন, উপত্যকায় স্বাভাবিক পরিস্থিতি ফিরিয়ে আনতে প্রতিটি পদক্ষেপ যেন সংবিধান মেনে করা হয়।