• মঙ্গলবার, অক্টোবর ২২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৮:২০ রাত

‘বিকল্প নোবেল’ জিতলেন সুইডেনের গ্রেটা থানবার্গ

  • প্রকাশিত ০৪:৪২ বিকেল সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৯
জলবায়ু আন্দোলনকারী সুইডিশ কিশোরী গ্রেটা থানবার্গ
জলবায়ু আন্দোলনকারী সুইডিশ কিশোরী গ্রেটা থানবার্গ ইউএনবি

জলবায়ুর প্রভাব মোকাবিলায় জরুরি ভিত্তিতে বৈজ্ঞানিক তত্ত্বের প্রতিফলনে উৎসাহ ও বিস্তারের দাবি জানানোর স্বীকৃতিস্বরূপ থানবার্গকে এ স্বীকৃতি দেওয়া হয়

‘বিকল্প নোবেল’খ্যাত জীবিকার অধিকার (রাইট লাইভলিহুড) অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত হয়েছেন সুইডিশ কিশোরী জলবায়ু আন্দোলনকারী গ্রেটা থানবার্গসহ চারজন।

পুরস্কার প্রদানকারী কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা ইউএনবি জানিয়েছে, জলবায়ুর প্রভাব মোকাবিলায় জরুরি ভিত্তিতে বৈজ্ঞানিক তত্ত্বের প্রতিফলনে উৎসাহ ও বিস্তারের দাবি জানানোর স্বীকৃতিস্বরূপ থানবার্গকে এ স্বীকৃতি দেওয়া হয়।

প্রসঙ্গত, গত সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) নিউইয়র্কে দিনব্যাপী জাতিসংঘের জলবায়ু সম্মেলনে প্রায় ৬০ জন বিশ্ব নেতার উপস্থিতিতে আবেগঘন ও উত্তেজিত কণ্ঠে বক্তব্য রাখেন ১৬ বছর বয়সী এ কিশোরী। জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় ব্যর্থতার জন্য বিশ্ব নেতাদের তীব্র ভাষায় নিন্দা করেন তিনি।

বিশ্বজুড়ে সাড়া ফেলা এ কিশোরী পরিবেশবাদীর ডাকে বিভিন্ন দেশের নানা বয়স ও শ্রেণি-পেশার প্রায় অর্ধকোটি মানুষ পরিবেশ রক্ষার আন্দোলনে জড়ো হয়েছেন।

প্রসঙ্গত, নোবেল পুরস্কার থেকে নিজেকে বঞ্চিত মনে করা সুইডিস-জার্মান জনদরদী জ্যাকব ভন এক্সকাল ১৯৮০ সালে রাইট লাইভলিহুড অ্যাওয়ার্ড চালু করেন। থানবার্গসহ পুরস্কারপ্রাপ্ত চারজনই ১ মিলিয়ন ক্রোনার করে পাবেন।

২০১৯ সালে থানবার্গের সাথে পুরস্কারপ্রাপ্ত অন্য তিনজন হলেন- অ্যামাজন বন ও তার জনগণকে সুরক্ষার জন্য ব্রাজিলের আদিবাসী সংগঠন দভি কোপেনাওয়া ও হুতুকারা অ্যাসোসিয়েশন, পঞ্চিম সাহারা অঞ্চলে অবিচল অহিংস কর্মকাণ্ডের জন্য মরক্কোর আমিনাতোউ এবং চীনে নারী অধিকার রক্ষায় কাজ করা চীনা আইনজীবী জুও জিয়ানমেই।