• শুক্রবার, ডিসেম্বর ০৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:১৪ সকাল

লাদেনের মতো বাগদাদির লাশেরও ঠিকানা হলো সমুদ্র

  • প্রকাশিত ০৪:৫৭ বিকেল অক্টোবর ২৯, ২০১৯
বাগদাদি
আইএস নেতা আবু বকর আল বাগদাদি রয়টার্স

‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আদর্শ সামরিক পদ্ধতির ভিত্তিতে এবং সশস্ত্র সংঘাতের আইন অনুসারে তার দাফন হয়েছে’

যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর অভিযানে নিহত জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস প্রধান আবু বকর আল-বাগদাদির লাশ সমুদ্রের পানিতে ফেলে দেওয়া হয়েছে বলে দেশটির গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে সোমবার (২৮ অক্টোবর) এবিসি নিউজ বলছে, সিরিয়ার উত্তর পশ্চিমাঞ্চলে শনিবার রাতে মার্কিন কমান্ডো বাহিনীর অভিযানের সময় বাগদাদি আত্মহত্যা করেছে। তার লাশ সমুদ্রে ফেলে দেওয়া হয়েছে।

এর আগে ২০১১ সালে পাকিস্তানে মৃত আল-কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেনের লাশও সমুদ্রের পানিতে ফেলে দিয়েছিল মার্কিন সেনারা। বাগদাদির দাফনের বিষয়ে বিস্তারিত না উল্লেখ করে সূত্রটি শুধু জানিয়েছে, লাদেনের মতো করেই তার লাশ ‘সমাহিত’ করা হয়েছে।

জয়েন্ট চিফস অফ স্টাফের চেয়ারম্যান জেনারেল মার্ক মিলি বলেন, ‘‘তার দেহাবশেষের নিষ্পত্তি করা হয়েছে, এবং সেটি যথাযথভাবে পরিচালিত ও সম্পন্ন হয়েছে।’’

মিলি বলেন, ‘‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আদর্শ সামরিক পদ্ধতির ভিত্তিতে এবং সশস্ত্র সংঘাতের আইন অনুসারে তার দাফন হয়েছে।’’

জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস এর প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান আল-বাগদাদিকে অনেকদিন ধরেই খুঁজছিলো যুক্তরাষ্ট্রের সেনা ও গোয়েন্দা বাহিনী।

সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, তার দেহ শনাক্তকরণের জন্য লাশটি ঘটনাস্থল থেকে নিয়ে আসা হয় এবং ডিএনএ পরীক্ষার পরে দেহটি যে বাগদাদিরই তা নিশ্চিত করা হয়। এরপরেই আবু বকর আল-বাগদাদির দেহের নিষ্পত্তি করা হয়।