• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৩:০৬ বিকেল

পাকিস্তানের জাদুঘরে অভিনন্দন বর্তমানের মূর্তি নিয়ে তোলপাড়

  • প্রকাশিত ০৫:০১ সন্ধ্যা নভেম্বর ১১, ২০১৯
অভিনন্দন মূর্তি
পাকিস্তানের জাদুঘরে ভারতীয় বিমানসেনা অভিনন্দন বর্তমানের মূর্তি টুইটার

ভারতীয়দের মন্তব্যে উঠে এসেছে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানের আত্মসমর্পণের প্রসঙ্গও

পাকিস্তানের করাচি শহরে দেশটির বিমান বাহিনীর জাদুঘরে ভারতীয় পাইলটের একটি মূর্তি স্থাপন করা হয়েছে। মূর্তিটির সঙ্গে রাখা রয়েছে একটি কফি মগ। সম্প্রতি এমন একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করেছেন এক পাকিস্তানি সাংবাদিক। পোস্টটি ভারতীয়দের নজরে পড়তেই তীব্র আক্রমণের শিকার হতে হয়েছে ওই সাংবাদিককে। 

এমনকি, ভারতীয়দের মন্তব্যে উঠে এসেছে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানের আত্মসমর্পণের প্রসঙ্গও।

ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, আনোয়ার লোধি নামে ওই পাক সাংবাদিক গত ৯ অক্টোবর ছবিটি শেয়ার করেন। সেখানে ভারতীয় বিমান বাহিনীর পোশাক পরা অভিনন্দন বর্তমানের মূর্তির পেছনে দেখা যাচ্ছে এক পাকিস্তানি সেনার মূর্তি। পাশে রাখা রয়েছে একটি কফি মগ। পেছনের দেওয়ালে ঝুলছে ভারতীয় বিমান বাহিনীর একটি পোশাক।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারের ভারতীয় ব্যবহারকারীদের ধারণা, একজন ভারতীয় সেনাকে বন্দি করে রাখাকে “সহজ” বিষয় হিসেবে উপস্থাপন করতে চাইছে পাকিস্তান।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ২৭ ফেব্রুয়ারি আকাশসীমা অতিক্রম করে পাকিস্তানে ঢুকে পড়লে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর হাতে আটক হন ভারতীয় পাইলট অভিনন্দন। তিনদিন পর (১ মার্চ) তাকে ভারতে ফিরিয়ে দেয় পাকিস্তান। ভারতীয় জনগণ অভিনন্দনকে মনে করে ‘‘ওয়ার হিরো’’। 

তাই পাকিস্তানের জাদুঘরে অভিনন্দনের এমন মূর্তি দেখে অনলাইনে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন ভারতীয়রা। তাই তারা বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় যৌথবাহিনীর ভারতীয় সেনাদের কাছে ৯৩ হাজার পাকিস্তানি সেনার আত্মসমর্পণের দুঃস্মৃতি মনে করিয়ে দিচ্ছেন।