• সোমবার, জানুয়ারী ২০, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪৫ রাত

রক্তে লাল হয়ে গেল নদী

  • প্রকাশিত ১১:৪৯ সকাল নভেম্বর ১৩, ২০১৯
ইমজিন নদী
শূকরের রক্ত মিশে লাল হয়ে যায় দক্ষিণ কোরিয়ায় সীমান্তবর্তী ইমজিন নদীর পানি। সংগৃহীত

বৃষ্টির পানিতে রক্ত ধুয়ে নদীতে মিশেছে

কোরিয়া সীমান্তের কাছের ইমজিন নদীর পানিতে শূকরের রক্ত মিশে টকটকে লাল রঙ ধারণ করেছে। এর জের ধরে তীব্র পরিবেশ দূষণের আশঙ্কা করা হচ্ছে। 

সম্প্রতি জীবনঘাতী আফ্রিকান সোয়াই ফিভার রুখতে সাউথ কোরিয়ায় ৪৭ হাজার শূকর হত্যা করে দেশটির সরকার। কোরিয়া সীমান্তের কাছে সেগুলোকে মাটিচাপা দেওয়া হয়। সেখান থেকে বৃষ্টির পানিতে রক্ত ধুয়ে নদীতে মিশেছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম বিবিসি। 

আফ্রিকান সোয়াইন ফিভার মানুষের জন্য বিপজ্জনক না হলেও, এতে আক্রান্ত হওয়া শূকরের বেঁচে থাকার সম্ভাবনা একেবারেই নেই। শূকরের মধ্যে এই রোগ খুব দ্রুতও ছড়িয়ে পড়ে। তাই দক্ষিণ কোরিয়ায় শূকর হত্যার এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। 

তবে পানিতে রক্ত মেশার ফলে অন্য কোনো প্রাণির সোয়াইন ফিভারে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। তারা জানিয়েছে, হত্যা করা শূকরগুলো ভাইরাসমুক্ত ছিল।  

চলতি বছরের ১৭ সেপ্টেম্বর দক্ষিণ কোরিয়ায় প্রথম সোয়াইন ফিভারের সংক্রামণ ধরা পড়ে। সেখানে এখন পর্যন্ত এই রোগে আক্রান্ত ১৩টি শূকর পাওয়া গেছে। দেশটিতে শূকরের মোট খামারের সংখ্যা  ৬ হাজার ৭০০টি। 

এদিকে চীন, ভিয়েতনাম ও ফিলিপিনসসহ এশিয়ার বেশ কয়েকটি দেশ সোয়াইন ফিভারে আক্রান্ত হয়েছে। এরমধ্যে শুধু চীনেই সংক্রামণ ঠেকাতে হত্যা করা হয়েছে ১২ লাখ শূকর।