• সোমবার, জানুয়ারী ২০, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪৫ রাত

নিজের 'স্বাধীন দেশের' ঘোষণা দিলেন ভারতের 'সাধু'

  • প্রকাশিত ১২:২২ দুপুর ডিসেম্বর ৪, ২০১৯
স্বামী নিত্যানন্দ
স্বামী নিত্যানন্দ। এনডিটিভি

নিত্যানন্দের ওয়েবসাইটে স্বাধীন নতুন দেশটি সম্পর্কে বলা হয়

"সার্বভৌম হিন্দু রাষ্ট্র" প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দিয়েছেন স্বামী নিত্যানন্দ নামের ভারতের এক কথিত সাধু। দেশটির নাম দেওয়া হয়েছে "কৈলাশ"। এছাড়া আর দশটি দেশের মতো সেটির নিজস্ব পতাকা, সংবিধান ও জাতীয় প্রতীক থাকবে বলেও জানানো হয়েছে। 

এদিকে নিজেকে অবতার হিসেবে ঘোষণা করা নিত্যানন্দকে ধর্ষণ ও শিশুদের অপহরণ করে আশ্রমে আটকে রাখার অভিযোগে গ্রেফতার করতে গুজরাট পুলিশ খুঁজছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। 

বার্তা সংস্থা আইএএনএস জানায়, নিত্যানন্দের ওয়েবসাইটে স্বাধীন নতুন দেশটি সম্পর্কে বলা হয়। সেখানে উল্লেখ করা হয়, কৈলাশে প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ করা হবে। থাকবে মন্ত্রীসভা। দেশটির নাগরিকদের থাকবে আলাদা পাসপোর্ট। পতাকায় থাকবে নিত্যানন্দ ও হিন্দু দেবতা শিবের বাহন নন্দীর ছবি। ওয়েবসাইটে কৈলাশের জন্য অনুদান দিতে আহ্বানা জানানো হয়। এর মাধ্যমে দেশটির নাগরিকত্ব মিলতে পারে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। 

যদিও দেশটির অবস্থান সম্পর্কে কোনো ইঙ্গিত দেওয়া হয়নি। তবে বলা হয়েছে, কৈলাশের কোনো সীমানা নেই। সারা বিশ্বে নিজ দেশে হিন্দু ধর্ম পালনের অধিকার হারানো বাসিন্দাদের নিয়েই দেশটি গঠন করা হয়েছে। 

ওয়েবসাইটে আরও উল্লেখ করা হয়, কৈলাশে শিক্ষা, রাজস্ব ও বাণিজ্যসহ সরকারি নানা বিভাগ থাকবে। এছাড়া সনাতন ধর্মকে আরও উজ্জীবিত করার জন্য থাকবে "ডিপার্টমেন্ট অব এনলাইটেনড সিভিলাইজেশন" নামের একটি আলাদা বিভাগ। দেশটিতে হিন্দু ধর্মভিত্তিক ব্যাংকব্যবস্থা থাকবে এবং গ্রহণ করা ক্রিপ্টোকারেন্সি। 

স্বামী নিত্যানন্দের বিরুদ্ধে কর্নাটক রাজ্যে একটি ধর্ষণের মামলা রয়েছে। পাশাপাশি তার আহমেদাবাদের আশ্রমে শিশুদের আটকে রেখে অত্যাচার করার অভিযোগ উঠেছে। সেখানে শিশুদের জোর করে টাকা সংগ্রহের কাজে লাগানো হতো বলে জানা গেছে। এ নিয়ে তার বিরুদ্ধে মামলাও করা হয়। প্রাণপ্রিয়া ও প্রিয়াতভাকে নামের  নিত্যানন্দের দুই শিষ্যকে অপহরণের অভিযোগে গ্রেফতারও করে পুলিশ।