• শনিবার, জানুয়ারী ১৮, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:৩৮ সকাল

ব্রিটেনের নির্বাচনে জিতলেন ৪ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত

  • প্রকাশিত ০১:০৯ দুপুর ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
যুক্তরাজ্য-নির্বাচন-বাংলাদেশি
যুক্তরাজ্যের নির্বাচনে জয়লাভ করা চার বাংলাদেশি নারী। বাঁ থেকে টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক, রুপা হক, রুশনারা আলী ও আপসানা বেগম। সংগৃহীত

রাজনীতির পাশাপাশি ব্যক্তিগত অর্জনেও সাফল্যমণ্ডিত তাদের ক্যারিয়ার

ব্রিটেনের পার্লামেন্টারি নির্বাচনে লেবার পার্টির পক্ষে বিজয়ী হয়েছেন চার বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নারী। তারা হলেন- টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক, রুশনারা আলী, রূপা হক ও আপসানা বেগম। রাজনীতির পাশাপাশি ব্যক্তিগত অর্জনেও সাফল্যমণ্ডিত তাদের ক্যারিয়ার। তবে নির্বাচনে অংশ নেওয়া বাকী ৫ ব্রিটিশ বাংলাদেশি জয়লাভ করতে পারেননি। তাদের মধ্যে ৩ জন নারী ও ২ জন পুরুষ।

টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক 

বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছোটবোন শেখ রেহানার মেয়ে টিউলিপ রেজওয়ানা সিদ্দিক যুক্তরাজ্যের হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড কিলবার্ন নির্বাচনি এলাকা থেকে লেবার পার্টির পক্ষে ২৮ হাজার ৮০ ভোট পেয়েছেন। অপরদিকে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ পার্টির জনি লাক পেয়েছেন ১৪ হাজার ১৮৮ ভোট।

২০১৭ সালের নির্বাচনে টিউলিপ দ্বিতীয়বারের মতো জয়লাভ করেছিলেন। সেবারের নির্বাচনে তিনি ৩৪ হাজার ৪৬৪ ভোট পেয়ে নিজের অবস্থান সুসংহত করেছিলেন। অন্যদিকে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ক্লেয়ার-লুইস পেয়েছিলেন ১৮ হাজার ৯০৪ ভোট।

১৯৮২ সালে লন্ডনের মিচহ্যামে জন্ম নেওয়া টিউলিপ লন্ডনের কিংস কলেজ থেকে দুটি বিষয়ে মাস্টার্স ডিগ্রি সম্পন্ন করেছেন। একটি ইংরেজি সাহিত্য এবং অপরটি পলিটিক্স, পলিসি ও গভর্নমেন্ট বিষয়ে।


আরও পড়ুন - যুক্তরাজ্যের নির্বাচনে বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপের হ্যাটট্রিক


উইকিপিডিয়ার তথ্য অনুসারে, তিনি রিজেন্ট পার্ক এলাকার সাবেক কাউন্সিলর ও ক্যাবিনেট সদস্য ছিলেন। ২০১০ সালে

টিউলিপই প্রথম বাঙালি নারী হিসেবে ক্যামডেন কাউন্সিলের সদস্য হন। তিনি ২০১৫ সালের নির্বাচনে অংশ নিয়ে তিনি প্রথমবারের মতো পার্লামেন্ট সদস্য নির্বাচিত হন।

রুশনারা আলী

রুশনারা আলী প্রথম বাংলাদেশি নারী যিনি ব্রিটিশ পার্লামেন্ট সদস্য নির্বাচিত হন। এবারের নির্বাচনেও তিনি পূর্ব লন্ডনের বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো আসনে ৪৪ হাজার ৫২ ভোট পেয়ে টানা চারবারের মতো নির্বাচিত হলেন।

২০১০ সাল থেকে বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো আসনে টানা তিনবার লেবার পার্টির প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন রুশনারা আলী। এবারও তিনি জয়ী হবেন বলে আশা করা হচ্ছে। ৪৪ বছরের এ রাজনীতিকের জন্ম সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার ভুরকি গ্রামে। ছোটোবেলায় মা-বাবার সঙ্গে লন্ডনে যান। ২০১০ সালের পর ২০১৫ সালের নির্বাচনে বিপুল ব্যবধানে নির্বাচিত হন রুশনারা আলী। ২০১৭ সালের নির্বাচনেও ভোট ব্যবধান বাড়ে।


আরও পড়ুন - ব্রিটেনের নির্বাচনে কনসারভেটিভদের বিপুল জয়


গত নির্বাচনে রুশনারা আলী একই নির্বাচনি এলাকা থেকে তিনি ৪২ হাজার ৯৬৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছিলেন।

৪৪ বছরের এ রাজনীতিকের জন্ম সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার ভুরকি গ্রামে। সর্বশেষ ২০১৫ সালের নির্বাচনের পর তিনি বাংলাদেশে আসা যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীর বাণিজ্য প্রতিনিধি দলের সদস্য হয়েছিলেন।

অক্সফোর্ডে পড়াশোনা করা রুশনারা আলী ২০১০ সালে প্রথমবারের মতো পার্লামেন্ট নির্বাচিত হয়ে দেশটির ইন্টারন্যাশনাল ডেভোলপমেন্ট অ্যান্ড এডুকেশনের “ছায়া মন্ত্রী”র দায়িত্বও পালন করেছেন।

রূপা হক

লেবার পার্টির পক্ষে টানা তৃতীয়বারের মতো নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক রুপা হক। লন্ডনের ইলিং সেন্ট্রাল আসন থেকে নির্বাচনে অংশ নিয়ে রূপা পেয়েছেন ২৮ হাজার ১৩২ ভোট। অপরদিকে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কানজারভেটিভ পার্টির জুলিয়ান গ্যালান্টস পেয়েছেন ১৪ হাজার ৮৩২ ভোট।


আরও পড়ুন - যুক্তরাজ্যের নির্বাচনে টানা তৃতীয়বার জয় পেলেন রূপা হ‌ক


দেশটির সর্বশেষ সাধারণ নির্বাচনে একই আসন থেকে অংশ নিয়ে ২২ হাজার ২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছিলেন রুশনারা আলী।

রূপা হক লন্ডনের কিংস্টোন ইউনির্ভাসিটির সোশিওলজির সিনিয়র লেকচারার হিসেবে কর্মকরত। তার পৈতৃক বাড়ি পাবনায়।

আপসানা বেগম 

প্রথমবারের মতো নির্বাচনে অংশ নিয়ে পপলার অ্যান্ড লাইমহাউস আসন থেকে ৩৮ হাজার ৬৬০ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আপসানা বেগম। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ পার্টির শিউন ওকে পেয়েছেন ৯ হাজার ৭৫৬ ভোট। আপসানা টাওয়ার হ্যামলেটসের সাবেক কাউন্সিলর ও মেয়র মনির উদ্দিন আহমদের মেয়ে।  

এদিকে, নির্বাচনে অংশ নেওয়া অপর ৫ ব্রিটিশ বাংলাদেশি পরাজিত হয়েছেন। তারা হলেন- লেবার পার্টির মনোনীত স্কটল্যান্ডে নর্থ এভারডিন আসনের নুরুল হক আলী, লন্ড‌নের বে‌কেনহাম আসনের মে‌রিনা আহমেদ ও হাটফোর্টশায়ার সাউথওয়েস্ট আসনের আলী আখলাকুল এবং কনজারভেটিভ পার্টির মনোনীত প্রার্থী হ্যারো ওয়েস্ট আসনের ডা. আনোয়ারা আলী ও কা‌র্ডিফ সেন্ট্রা‌ল লিব‌ডে‌ম আসনের ড. বাব‌লিন বাব‌লিন ম‌ল্লিক।