• বুধবার, ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:২৭ রাত

বিজেপি নেতা: সংস্কৃত বললে নিয়ন্ত্রণে থাকে ডায়াবেটিস

  • প্রকাশিত ০৪:১৪ বিকেল ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯
বিজেপি নেতা গণেশ সিং
বিজেপি নেতা ও সংসদ সদস্য গণেশ সিং সংগৃহীত

তিনি আরও দাবি করেন, কয়েকটি ইসলামিক ভাষাসহ বিশ্বের ৯৭ ভাগ ভাষার ভিত্তিও সংস্কৃত

প্রায়ই বেফাঁস মন্তব্য করে প্রায়ই সমালোচনার শিকার হচ্ছেন ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপি'র নেতারা। তবে শত সমালোচনা তাদেরকে দমাতে ব্যর্থ। এবার বিজেপি নেতা ও সংসদ সদস্য গণেশ সিং বলেছেন, সংস্কৃত ভাষায় কথা বললে শরীর-স্বাস্থ্য ভাল থাকে। শুধু তাই নয়, এতে নাকি ডায়াবেটিস আর কোলস্টেরলের মাত্রাও কমে যায়।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) সংস্কৃত কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয় বিল নিয়ে একটি বিতর্ক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এসব কথা বলেন গণেশ। তার মতে, ‘‘‌সংস্কৃতে কথা বললে স্নায়ুতন্ত্র শক্তিশালী হয়। নিয়ন্ত্রণে থাকে কোলেস্টেরল ও ডায়াবেটিস।’‌’‌ যুক্তরাষ্ট্রের একটি সংস্থার গবেষণার বরাত দিয়ে এমনটা দাবি করেন তিনি। 

তিনি আরও দাবি করেন, কয়েকটি ইসলামিক ভাষাসহ বিশ্বের ৯৭ ভাগ ভাষার ভিত্তিও সংস্কৃত।

প্রসঙ্গত, এর আগেও ইতিহাস, চিকিৎসা, বিজ্ঞান ইত্যাদি বিষয়ে একাধিকবার ভিত্তিহীন ও হাস্যকর কথাবার্তা বলেছেন বিজেপি নেতারা। কখনও তারা দাবি করেছেন, গণেশের মাথায় প্লাস্টিক সার্জারি করে হাতির মাথা বসানো হয়েছিল। ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নিজেও একবার দাবি করেছিলেন, ইন্টারনেট আবিষ্কারের আগেই তিনি ই-মেইল করে ছবি পাঠিয়েছেন। গো-মূত্র ও গরুর দুধ নিয়ে তো বারবারই বিভিন্ন ধরনের অযৌক্তিক, অবৈজ্ঞানিক কথা শোনা গেছে বিজেপি নেতাদের মুখে। যেমন, দলটির নেত্রী স্বাধ্বী প্রজ্ঞা দাবি করেছিলেন, “গরুর গায়ে হাত বুলিয়ে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়।”

এসবের পরে এবার সংস্কৃত ভাষার ওপর সম্পূর্ণ মনগড়া ও ভিত্তিহীন এক দাবি চাপিয়ে দিলেন গণেশ সিং।