• বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ০২, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:০৭ সকাল

অমিত শাহ: যেকোনও মূল্যে এনআরসি বাস্তবায়ন করা হবে

  • প্রকাশিত ১১:৩৮ সকাল ডিসেম্বর ১৮, ২০১৯
অমিত শাহ-amit shah
ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। ফাইল ছবি সংগৃহীত

এদিকে এনআরসি ও সিএএ প্রয়োগ করতে হলে তার মৃতদেহের ওপর দিয়ে করতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

ভারতের নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (ক্যাব) ও জাতীয় নাগরিক নিবন্ধন (এনআরসি) পশ্চিমবঙ্গে হতে দেবেন না বলে জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীকে খুব বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন না দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। পশ্চিমবঙ্গে ন্যাশনাল পুপলেশন রেজিস্টার (এনপিআর) তৈরির কাজ বন্ধ করার নির্দেশকেও অবৈধ বলে মনে করছেন তিনি।

বুধবার (১৮ ডিসেম্বর) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজারের এক প্রতিবেদনে এতথ্য দেওয়া হয়েছে।এমনকি কেন্দ্রীয় সরকারের কাজে হস্তক্ষেপ করার অধিকার নেই রাজ্য সরকারের বলেও জানিয়েছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। 

মমতার দাবি প্রসঙ্গে একটি সংবাদমাধ্যমে অমিত শাহ জানান, ‘‘বিষয়টি এত গুরুত্ব দিয়ে দেখার দরকার নেই। সিএএ ও এনআরসি কেন্দ্রীয় তালিকাভুক্ত বিষয়। প্রতিটি রাজ্য তা বাস্তবায়নে বাধ্য। দিনক্ষণ এখনও ঠিক না হলেও কেন্দ্র ওই আইন গোটা দেশে প্রয়োগ করতে বদ্ধপরিকর।” 

প্রসঙ্গত, এনআরসি থেকে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ), রাজ্যে প্রয়োগ হতে দেবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

শরণার্থীরা যাতে এনআরসি-তে বাদ না পড়েন, তার জন্য সদ্য সমাপ্ত অধিবেশনেই নাগরিকত্ব আইনে সংশোধনী আনে সরকার। কিন্তু এনআরসি ও সিএএ-র মাধ্যমে বিজেপি ধর্মীয় মেরুকরণ ও বিভাজনের রাজনীতি করছে বলে অভিযোগে সরব হয় বিরোধী দলগুলি। মমতা জানান, তিনি কোনও ভাবেই এনআরসি এবং সিএএ রাজ্যে প্রয়োগ হতে দেবেন না। এনআরসি ও সিএএ হলে তার মৃতদেহের উপর দিয়ে করতে হবে  বলে হুঁশিয়ারি দেন মমতা।

এদিকে ২০২১ সালের আদমশুমারি কাজের পাশাপাশি চালু এনপিআর তৈরির কাজও বন্ধ করে দিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার।