• রবিবার, ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৪২ রাত

‘মুসলিমদের এত দেশ, হিন্দুদের তো একটাও নেই’

  • প্রকাশিত ০৭:১৩ রাত ডিসেম্বর ১৮, ২০১৯
নিতিন গডকড়ি
ভারতের কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহনমন্ত্রী নিতিন গডকড়ি সংগৃহীত

ভারতের কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহনমন্ত্রী নিতিন গডকড়ি বলেন, ‘বিশ্বে এমন একটি দেশও নেই যেটা হিন্দুদের। একসময় নেপাল হিন্দুরাষ্ট্র ছিল। এখন সেটাও নেই। তাহলে হিন্দুরা যাবেন কোথায়?’ 

হিন্দুদের জন্য কোনও নির্দিষ্ট দেশ নেই বলে রীতিমতো আক্ষেপ ঝরে পড়লো ভারতের কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহনমন্ত্রী নিতিন গডকড়ির গলায়। তিনি মনেকরেন, হিন্দুদের অস্তিত্ব রক্ষায় সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বড়ই প্রয়োজন। এক প্রতিবেদনে এখবর জানিয়েছে আনন্দবাজার।

বুধবার (১৮ ডিসেম্বর) একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের অনুষ্ঠানে নিতিন বলেন, ‘‘বিশ্বে এমন একটা দেশও নেই যেটা হিন্দুদের। একসময় নেপাল হিন্দুরাষ্ট্র ছিল। এখন সেটাও নেই। তাহলে হিন্দুরা যাবেন কোথায়? কোথায় যাবেন শিখেরা? মুসলিমদের জন্য কিন্তু অনেক দেশ রয়েছে। মুসলিমরা অনেক দেশের নাগরিকত্ব পেতে পারলেও হিন্দুদের সেই উপায় নেই। তাই সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে বিরোধীরা মানুষকে ভুল বোঝাচ্ছেন।’’

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে বিরোধীরা কীভাবে ভুল বোঝাচ্ছেন, তা ব্যাখ্যা করতে গিয়ে নিতিন জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সরকার দেশের হিন্দু ও মুসলিম নাগরিকদের আলাদা চোখে দেখে না।

নিতিনের কথায়, ‘‘আমরা দেশের কোনও মুসলিমবিরোধী নই। কোনও কোনও বিরোধীদল এটা নিয়ে সংখ্যালঘুদের অযথা ভয় দেখাচ্ছে। আমি দায়িত্ব নিয়ে বলছি, এই সরকার (মোদী সরকার) হিন্দু-মুসলিম বাছ-বিচার বিরোধী।’’

প্রসঙ্গত সম্প্রতি সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনে বলা হয়েছে, ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বর বা তার আগে আফগানিস্তান, পাকিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে যে অবৈধ অনুপ্রবেশকারীরা ভারতে ঢুকেছিলেন, তারা যদি হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন, পার্সি বা খ্রিস্টান হন, তাহলে তাদের আর অবৈধ অনুপ্রবেশকারী বলা হবে না। তারা সকলেই ভারতের নাগরিকত্ব পাবেন এবং তা বৈধভাবেই।