• সোমবার, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:২১ রাত

সম্পর্কে ফিরে আসতে বলায় প্রাক্তন প্রেমিককে পিটিয়ে হত্যা!

  • প্রকাশিত ০৮:০২ রাত ডিসেম্বর ৩১, ২০১৯
গণপিটুনি
প্রতীকী ছবি।

হাতের কাছে হাতুরি, কাঠ যা ছিল তাই দিয়েই ক্রমাগত মারতে থাকেন তাকে। অত্যাধিক রক্তপাতের ফলে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার

পুরনো সম্পর্ক জোড়া লাগানোর আবেদন নিয়ে প্রাক্তন প্রেমিকার কাছে গিয়েছিলেন ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের চলচ্চিত্রকর্মী এম রবি (৩৮)। আর এই আবেদনই কেড়ে নিয়েছে তার প্রাণ। পুরনো প্রেমিককে কাঠ আর হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছেন তামিল অভিনেত্রী এস দেবী (৪২)। প্রাক্তন প্রেমিককে হত্যার পর থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণও করেছেন ওই অভিনেত্রী। 

সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) স্থানীয় সময় সকালে চেন্নাই শহরের কোলাতুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা।

পুলিশ সূত্রের বরাত দিয়ে আনন্দবাজার জানিয়েছে, আট বছর আগে কাজের খোঁজে চেন্নাইয়ে পাড়ি জমিয়েছিলেন রবি। সেখানেই তামিল সিনেমায় ছোট-খাটো চরিত্রে অভিনয় করা এস দেবীর সঙ্গে পরিচয় হয় তার। একসময় পরিচয় গড়ায় পরিণয়ে। যদিও এই সম্পর্ক বিয়েতে পরিণতি পায়নি। কয়েক বছর পরে এস দেবীর বিয়ে হয়ে যায় চেন্নাইয়ের বাসিন্দা শঙ্কর নামে এক ব্যবসায়ীর সঙ্গে।

বছর দু’য়েক আগে স্ত্রীর পুরনো সম্পর্কের বিষয়টি জানতে পারেন শঙ্কর। তিনি দেবীকে সাবধান করেন কোনোভাবেই যেন পুরনো প্রেমিকের সঙ্গে তিনি যোগাযোগ না করেন। এমন হলে ফল ভাল হবে না বলে হুমকিও দেন।

সোমবার হঠাৎই পুরনো প্রেমিকার খোঁজে দেবীর কোলাতুরের বাড়িতে এসে হাজির হন রবি। পুরনো সম্পর্কে ফিরে যাওয়ার জন্য চাপ দিতে থাকেন তাকে। তখনই রবির উপর চড়াও হন দেবী। হাতের কাছে হাতুরি, কাঠ যা ছিল তাই দিয়েই ক্রমাগত মারতে থাকেন তাকে। অত্যাধিক রক্তপাতের ফলে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার।

রবি মারা গেলে নিকটবর্তী রাজামঙ্গলম থানায় গিয়ে নিজের অপরাধের কথা জানালে তখনই তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় দেবী ছাড়া তার স্বামী শঙ্কর, বোন লক্ষ্মী এবং বোনের স্বামী সাওয়ারিয়ারও জড়িত থাকতে পারেন বলে ধারণা পুলিশের।