• শনিবার, জানুয়ারী ১৮, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:২১ দুপুর

ট্রাম্প: মার্কিন দূতাবাসগুলোতে হামলার পরিকল্পনা ছিলো ইরানের

  • প্রকাশিত ১০:৫৩ সকাল জানুয়ারী ১১, ২০২০
ট্রাম্প খামেনি
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ইরানের সবোর্চ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি। সংগৃহীত

অন্যদিকে, মার্কিন ডেমোক্রেট সদস্যদের পক্ষ থেকে এক সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়েছে, মার্কিন দূতাবাসগুলোতে ইরানের হামলা চালানোর কোনও তথ্য-প্রমাণ তাদের কাছে নেই

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের ৪টি দূতাবাসে হামলার পরিকল্পনা ইরানের ছিলো। দেশটির মেজর জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার সময় এসব ষড়যন্ত্র করা হচ্ছিলো।

সর্বশেষ শুক্রবার (১০ জানুয়ারি) চালানো মার্কিন ড্রোন হামলার পেছনে আসলে কী হুমকি ছিলো সেবিষয়ে জানতে চাইলে ফক্স টিভি’কে ট্রাম্প বলেন, “আমি এখন বিষয়টি সবাইকে বলতে পারি, আমি বিশ্বাস করি চারটি দূতাবাস হতে পারে যেখানে হামলার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছিলো।”

এদিকে, ইরানের জাতীয় বীর হিসেবে খ্যাত সোলাইমানিকে হত্যার পর থেকেই ইরাকের বাগদাদে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাসে বিক্ষোভ প্রিদর্শিত হচ্ছে। অন্যদিকে, মার্কিন ডেমোক্রেট সদস্যদের পক্ষ থেকে এক সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়েছে, মার্কিন দূতাবাসগুলোতে ইরানের হামলা চালানোর কোনও তথ্য-প্রমাণ তাদের কাছে নেই।

এর আগে, গত বৃহস্পতিবার প্রথম ইরানের বিরুদ্ধে মার্কিন দূতাবাসে হামলার পরিকল্পনার অভিযোগ তোলেন এবং একাধিকবার এই অভিযোগের পুনরাবৃত্তি করেন। ট্রাম্পের সাথে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওকেও সুর মেলাতে দেখা যায়। 

পম্পেও বলেন, “আমাদের কাছে সুনির্দিষ্ট তথ্য-প্রমাণ রয়েছে ইরানের পক্ষ থেকে একটি বিধ্বংসী হামলা চালানোর। এরমধ্যে একাধিক মার্কিন দূতাবাসও তাদের লক্ষ্যবস্তুর তালিকায় রয়েছে।”