• শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৫৪ দুপুর

‘গো ব্যাক মোদী, গো ব্যাক মমতা’ স্লোগানে উত্তাল কলকাতা

  • প্রকাশিত ১১:৪৪ সকাল জানুয়ারী ১২, ২০২০
সিএএ
পশ্চিমবঙ্গে সফররত ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে শনিবার (১১ জানুয়ারি) সকাল থেকেই গণজমায়েত শুরু হয় কলকাতার বিভিন্ন জায়গায় সংগৃহীত

বিক্ষোভকারীদের মমতা বলেন, এসব আইন কেবল কাগজ-কলমেই থাকবে। যতক্ষণ দেশের মানুষ চাইবে না, ততক্ষণ কার্যকর হবে না। আর পশ্চিমবঙ্গে তো কার্যকর করবোই না

পশ্চিমবঙ্গে সফররত ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে শনিবার (১১ জানুয়ারি) সকাল থেকেই গণজমায়েত শুরু হয় কলকাতার বিভিন্ন জায়গায়। রাতে রাজভবনের পথে এগোতে বাধাপ্রাপ্ত হয়ে সেই আন্দোলনকারীদের মিছিল থেকেই স্লোগান ওঠে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির বিরুদ্ধেও। এক প্রতিবেদনে এখবর নিশ্চিত করেছে আনন্দবাজার।

ভারতে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (সিএএ) প্রতিবাদে দেশটির প্রধানমন্ত্রীকে বিক্ষোভ দেখাতে শনিবার শহরজুড়ে কর্মসূচি ঘোষণা করে বাম, কংগ্রেসসহ একাধিক বিরোধীদল ও তাদের শাখা সংগঠন। ভোর সাড়ে ৬টা থেকেই মোদীর সম্ভাব্য সব যাত্রাপথে সেইমতোই জমায়েত ছিল তাদের।  মোদীর বিরুদ্ধে “গো ব্যাক” স্লোগান লেখা প্ল্যাকার্ড, কালো বেলুন আর কালো পোশাকে সেই বিক্ষোভ চলে সর্বত্র। ভারতের প্রধানমন্ত্রী অবশ্য দমদম বিমানবন্দর থেকে হেলিকপ্টারে সোজা রেসকোর্সে এসে রাজভবনে চলে যান।

পরবর্তীতে, সন্ধ্যায় সেই বিক্ষোভ থেকেই বাম ছাত্রদের একটি মিছিল রাজভবনে যাওয়ার চেষ্টা করে। পুলিশ বাধা দিলে চরম উত্তেজনা তৈরি হলে তৃণমূলের ছাত্র সংগঠনের মঞ্চে উপস্থিত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতার উদ্দেশেও “গো ব্যাক” স্লোগান দেন তারা। 

এসময় মমতা তাদের বলেন, “আপনারা যে দাবিতে আন্দোলন করছেন, আমরাও সেই দাবিতে পথে আছি। শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন করুন।’’ 

বিকেলে মোদীর সঙ্গে রাজভবনে দেখা করতে যান মমতা। পরে সেখান থেকে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের অবস্থান মঞ্চে চলে আসেন। সেখানে নতুন নাগরিকত্ব আইন ও জাতীয় নাগরিকপঞ্জীর প্রতিবাদে শুক্রবার থেকে অবস্থান শুরু করেছে তৃণমূলের ছাত্র সংগঠন। 

সেখানে এসে মমতা বলেন, ‘‘কেন্দ্র গতকাল জেদ করে এনপিআর-এর বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে। তা কেবল কাগজ-কলমেই থাকবে। যতক্ষণ দেশের মানুষ চাইবে না, ততক্ষণ তা কার্যকর হবে না। আর এখানে আমরা তো কার্যকর করবোই না।’’ 

যদিও বিক্ষোভকারীদের কেউ কেউ চিৎকার করে মমতাকে, ‘‘মীরজাফর.. মোদীর দালাল’’ বলতে থাকেন।

এদিকে, রবিবারও দিনভর একইরকম বিক্ষোভ কর্মসূচির ডাক দিয়েছে বাম, কংগ্রেসসহ অন্যান্য দল ও তাদের শাখা সংগঠনগুলি।