• শুক্রবার, এপ্রিল ০৩, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩৭ রাত

থানা থেকে ১৮টি বন্দুক চুরি করে এএসআই গ্রেফতার!

  • প্রকাশিত ০৫:৫৬ সন্ধ্যা জানুয়ারী ২২, ২০২০
আটক
প্রতীকী ছবি

গ্রেফতারকৃত পুলিশ সদস্য থানার মজুতখানার দায়িত্বে থাকায়, বাজেয়াপ্ত অস্ত্রের হিসেবও রাখতেন তিনি। তাই ধীরেধীরে অস্ত্র পাচার হয়ে যাওয়ার পরও কেউ জানতে পারেননি

একের পর এক আগ্নেয়াস্ত্র চুরি যাচ্ছিলো থানার মজুতখানা থেকে। প্রথমে কেউ বুঝতে পারছিলো না কীভাবে চুরি হচ্ছে সেসব। শেষে ধরা পড়লো সর্ষের মধ্যেই ভূত! খোদ পুলিশ অফিসারই থানা থেকে সরাচ্ছিলেন একের পর এক আগ্নেয়াস্ত্র! এক প্রতিবেদনে এমনটিই জানিয়েছে আনন্দবাজার।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের ঝাড়গ্রামের লালগড় থানায়। সেখান থেকে ১৮টি আগ্নেয়াস্ত্র চুরির অভিযোগে বুধবার (২২ জানুয়ারি) জামবনি থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক তারাপদ টুডুকে গ্রেফতার করে ঝাড়গ্রাম জেলা পুলিশ। 

তারাপদের সঙ্গে গ্রেফতার করা হয়েছে আরও তিনজনকে। তারা যদিও পুলিশ সদস্য নন। জেলা পুলিশের দাবি, বড় একটি অস্ত্রপাচার চক্র এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত।  

জেলা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ২০০৮ থেকে পরবর্তী প্রায় চারবছর লালগড় থানা এলাকায় মাওবাদীদের হাত ধরে প্রচুর অস্ত্র ঢুকেছিলো। তখন থেকেই বিভিন্ন সময়ে পুলিশ অনেক আগ্নেয়াস্ত্র বাজেয়াপ্ত করেছিলো। সেসব বাজেয়াপ্ত অস্ত্র নিয়ে এখনও মামলা চলছে আদালতে। ফলে, উদ্ধার হওয়া আগ্নেয়াস্ত্রগুলি রাখা ছিল থানারই মজুতখানাতে।

তারাপদ নিজেই মজুতখানার দায়িত্বে থাকায়, বাজেয়াপ্ত অস্ত্রের হিসেবও রাখতেন তিনি। তাই ধীরেধীরে অস্ত্র পাচার হয়ে যাওয়ার পরও কেউ জানতে পারেননি।