• মঙ্গলবার, এপ্রিল ০৭, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১১:২৮ রাত

দিল্লির মার্কিন দূতাবাসে পাঁচ বছরের শিশু ধর্ষিত

  • প্রকাশিত ০৪:০১ বিকেল ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২০
ধর্ষণ-শিশু-যৌন হয়রানি
প্রতীকী ছবি বিগস্টক

অভিযুক্ত ব্যক্তি ও শিশুটির পরিবার দূতাবাসের ভেতরের বাসভবনেই বসবাস করে আসছিল

ভারতের রাজধানী দিল্লির মার্কিন দূতাবাসের ভেতরে পাঁচ বছরের একটি শিশু ধর্ষিত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। পুলিশ জানিয়েছে, এই ঘটনায় অভিযুক্ত এক গাড়ি চালককে (২৫) গ্রেফতারের পর কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গত সপ্তাহে ঘটনাটি ঘটে বলে বৃহস্পতিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি।

এনডিটিভি জানায়, গত ১ ফেব্রুয়ারি ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটে। পরদিন অভিযুক্তকে কারাগারে পাঠানো হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নয়াদিল্লি পুলিশের ডেপুটি কমিশনার এইশ সিংহাল জানান, “ঘটনায় অভিযুক্ত ব্যক্তি ধারণা করেছিল শিশুটি তার পরিবারকে জানাবে না এমনকি কেউ পুলিশকেও জানাবে না।”

স্থানীয় পুলিশ আরও জানায়, অভিযুক্ত ব্যক্তি ও শিশুটির পরিবার দূতাবাসের ভেতরের বাসভবনেই বসবাস করে আসছিল। শিশুটির বাবা সেখানকার হাউসকিপিং কর্মী হিসেবে কর্মরত। আর পেশায় গাড়ি চালক অভিযুক্তের বাবা দূতাবাসের কর্মী। বাবা-মায়ের সঙ্গে সে সেখানেই থাকত।

অভিযুক্ত ব্যক্তি তাদের কর্মী নয় জানিয়ে দিল্লির মার্কিন দূতাবাস জানিয়েছে, “অনাকাঙ্খিত এই অভিযোগের বিষয়টি আমাদের যথেষ্ট উদ্বিগ্ন করেছে। অভিযোগ পাওয়ার পরপরই আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি এবং পুলিশকে জানিয়েছি। সেইসঙ্গে আমরা তাদেরকে সর্বাত্মক সহায়তা করছি।”

স্থানীয় পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, “শনিবার সকালে ঘটনাটি ঘটে। তখন শিশুটি বাসায় একা ছিল। বাসার পাশেই একাকী খেলতে দেখে সে তাকে নিজের বাসায় নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে।”

তিনি আরও জানান, শিশুটি আহতাবস্থায় ঘরে ফিরে অস্বস্তির কথা জানালে তার মায়ের সন্দেহ হয়। মেয়েটির মা একজন অন্তঃস্বত্তা। বিষয়টি বোঝার পরে তিনিও অসুস্থ হয়ে পড়েন। এরপরেও তিনি মেয়েকে চিকিৎসার জন্য একটি স্থানীয় হাসপাতালে যান।

পরদিন অর্থাৎ রবিবার সকালে স্থানীয় চাণক্যপুরী পুলিশ স্টেশনে তিনি একটি অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ শিশুটির মেডিকেল পরীক্ষার পর ট্রমা সেন্টারে চিকিৎসা দিয়েছে। মেডিকেল পরীক্ষায় ধর্ষণের প্রমাণ পাওয়া গেছে।