• শুক্রবার, এপ্রিল ০৩, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:০৪ দুপুর

দণ্ডিত জঙ্গির বেহেস্তের কর্মপরিকল্পনা: আল্লাহ, ৭২ স্ত্রীর সাথে দেখা করা!

  • প্রকাশিত ০৪:০২ বিকেল ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২০
তালিকা
সৌজন্যে

মহিউসুন্নাথ চৌধুরী ও তার বোন স্নেহা চৌধুরীকে সন্ত্রাসবাদী কার্যক্রমে সংশ্লিষ্টতার জন্য দোষী সাব্যস্ত করা হয়

জান্নাতে যাওয়ার পর কী কী করবেন তার একটি তালিকা করে সংবাদমাধ্যমগুলোর শিরোনাম হয়েছেন যুক্তরাজ্যে সন্ত্রাসবাদের পরিকল্পনাকারী এক তরুণ। সন্ত্রাসবাদী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে যুক্ত থাকার দায়ে সম্প্রতি দেশটির একটি আদালত মহিউসুন্নাথ চৌধুরী (২৮) নামের ওই তরুণকে দোষী সাব্যস্ত করে।

সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়, বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মহিউসুন্নাথ চৌধুরী লন্ডনে একটি মুরগির মাংসে

র দোকানে কর্মরত ছিলেন। এর আগে তিনি উবারচালক হিসেবেও কাজ করেছেন। সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার পর তিনি লন্ডনের মাদাম ত্যুসো মিউজিয়াম এবং  সমকামীদের সমাবেশ ছাড়াও একটি দ্বিতল বাসে হামলার মাধ্যমে "শহিদ" হওয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন।  

আদালত তাকে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের প্রস্তুতি নেওয়া, সন্ত্রাসবাদী হামলা চালানোর জন্য তথ্য সংগ্রহ করা এবং সন্ত্রাসবাদী বার্তা ছড়ানোর দায়ে দোষী সাব্যস্ত করে। 

বিবিসির হাতে আসা ওই তালিকায় মহিউসুন্নাথ চৌধুরী শিরোনাম দিয়েছেন "জান্নাতের পরিকল্পনা"। তারপর একে একে তুলে ধরেছেন তার সব ইচ্ছাগুলো। সেগুলোর মধ্যে রয়েছে-

১. জান্নাতে সব সম্পত্তি ঘুরে দেখা এবং প্রধান প্রাসাদ নির্বাচন করা। 

২. সব স্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করা, তাদের নাম দেওয়া এবং প্রধান দুজনকে নির্বাচন করা। 

৩. প্রধান প্রাসাদটি সুসজ্জিত করা। 

৪. পরিবারের সব সদস্যদের সঙ্গে দেখা করা এবং ভোজ করা। 

৫. সব বন্ধুদের সঙ্গে দেখা করা এবং ভোজ করা।

৬. সব নবী-রাসূল ও সাহাবীদের সঙ্গে দেখা করা। 

৭. আল্লাহর সঙ্গে দেখা করা  

৮. জান্নাতের বাজার ঘুরে দেখা। 

৯. স্ত্রীদের সঙ্গে সময় কাটানো। 

১০. নতুন নতুন ধরনের বিনোদন নেওয়া। 

ওই তালিকায় মহিউসুন্নাথ চৌধুরীর "ইচ্ছাগুলো" বাদেও লেখা রয়েছে কুরআনের আয়াত, হাদিস ও জান্নাতের বর্ণনা। 

এদিকে মহিউসুন্নাথ চৌধুরীর বোন স্নেহা চৌধুরীকেও সন্ত্রাসবাদী কার্যক্রমের তথ্য দিয়ে ব্যর্থ হওয়ায় দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। 

মহিউসুন্নাথ চৌধুরী। সৌজন্যে