• রবিবার, মার্চ ২৯, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৯:৩২ রাত

করোনাভাইরাসের ভয়ে জঙ্গিদের ইউরোপ এড়িয়ে চলতে বলছে আইএস!

  • প্রকাশিত ০২:২৪ দুপুর মার্চ ১৬, ২০২০
আইএস যোদ্ধা
আইএস যোদ্ধা। ফাইল ছবি:এএফপি

আইএস-এর এই নির্দেশনায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা নির্ধারিত সতর্কতামূলক ব্যবস্থার বাইরে সব ধরনের পানির পাত্র ঢেকে রাখার কথা বলা হয়েছে

করোনাভাইরাসের কবলে পড়া ইউরোপের দেশগুলোতে অনুসারীদের ভ্রমণ না করার পরামর্শ দিয়েছে সন্ত্রাসবাদী গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)। চরমপন্থী এই সংগঠনটির সাপ্তাহিক ক্রোড়পত্র "আল নাবা"কে উদ্ধৃত করে এই তথ্য জানিয়েছে মার্কিন সাময়িকী পলিটিকো।

সাধারণত আল নাবা'র মাধ্যমে পশ্চিমা দেশগুলোতে আক্রমণ চালানোর জন্য অনুসারীদের উদ্বুদ্ধ করা হলেও এর সর্বশেষ সংস্করণে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এলাকা থেকে দুরে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছ

শুধু তাই নয়, ক্রোড়পত্রটির শেষের পাতা জুড়ে কীভাবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধ করতে হবে সেবিষয়ে তাদের যোদ্ধাদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। সেখানে আল্লাহর প্রতি ভরসা রাখা ও সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে প্রার্থনার পাশাপাশি হাঁচি-কাশির সময় মুখ ঢেকে রাখারও পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

আইএস-এর এই নির্দেশনায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা নির্ধারিত সতর্কতামূলক ব্যবস্থার বাইরে সব ধরনের পানির পাত্র ঢেকে রাখার কথা বলা হয়েছে।

এবিষয়ে একটি হাদিসের উল্লেখ করা হয়েছে যেখানে বলা হয়, "তোমরা আহার ও পান করার পাত্র ঢেকে রাখ, কেননা প্রতিবছর কোনো রাতে মহামারির আগমন হয়, তখন যেসকল পাত্র অনাচ্ছাদিত থাকে সেগুলোতে মহামারি আপতিত হয়।"

এছাড়াও অনুসারীদের মধ্যে যারা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বলে মনে করছেন, তাদের আইএস-এর শাসনাধীন এলাকা থেকে দূরে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এসব এলাকার অন্যদের স্বাস্থ্য বিবেচনায় এই "পবিত্র দায়িত্ব" পালন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য চলতি বছরের শুরুতে চীনে করোনাভাইরাসের প্রকোপ দেখা দেওয়ার পর থেকে অন্যান্য মূলধারার গণমাধ্যমগুলোর মতোই এবিষয়ে নিয়মিত প্রতিবেদন প্রকাশ করে আসছে আল নাবা। এসব প্রতিবেদনে চীনের সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলিমদের মাধ্যমে আইএস-এর শাসনাধীন অঞ্চলে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করে আল নাবা।