Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

কেরালা বন্যার্তদের পাশে সাধারণ মানুষ

ব্যবসায়ী ও দোকানদার থেকে শুরু করে জেলে, যে যার অবস্থান থেকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।

আপডেট : ১৯ আগস্ট ২০১৮, ০৮:১৫ পিএম

শতাব্দীর সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যায় এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৩শ’ ছাড়িয়েছে ভারতের কেরালা অঙ্গরাজ্যে। বন্যার্তদের সহযোগিতায় সাধ্যমতো সহায়তায় এগিয়ে এসেছেন সবাই। এমনকি কম খরচে বন্যার্তরা যেন নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি কিনতে পারে, সেজন্য ব্যবসায়ী ও দোকানদাররাও নিজের লাভ ছেড়ে দিয়ে শুধু কেনা মূল্যে জিনিসপত্র বিক্রি করছেন।

এ ধরনের বন্যায় মাছ ধরার কাজ বন্ধ রয়েছে। স্থানীয় জেলেরা তাই নিজ উদ্যোগেই মাছ ধরার নৌকা নিয়ে উদ্ধারকাজে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন।

এদিকে, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বন্যাকবলিত কেরালা পরিদর্শন শেষে তাৎক্ষণিকভাবে ৫শ’ কোটি রুপি কেন্দ্রীয় সহায়তা দেয়ার কথা দিয়েছেন। এ ছাড়াও তিনি উদ্ধার অভিযানের জন্য আরও বেশি হেলিকপ্টার ও নৌকাসহ প্রয়োজনীয় সব সরঞ্জাম সরবরাহের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

পুরো মৌসুম জুড়েই তীব্র বৃষ্টিপাতের তোড়ে বিভিন্ন স্থানে বন্যার পানি জমতে শুরু করে। গত ৮ আগস্ট থেকে বৃষ্টি ভয়াবহ আকার ধারণ করে এবং বন্যার পানি হঠাৎই খুব বেশি বেড়ে যায়। পরবর্তীতে ৯ আগস্ট রেড অ্যালার্ট জারি করা হয় সম্পূর্ণ রাজ্যে।

৮ আগস্ট থেকে এ পর্যন্ত অন্তত ১৯৬ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে বলেই জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া। কিন্তু বর্ষা মৌসুমের এই ভয়াবহ বন্যায় মৃতের সংখ্যা ৩শ’ ছাড়িয়েছে। তিন হাজারেরও বেশি আশ্রয় কেন্দ্রে সরিয়ে নেয়া হয়েছে ৬ লাখের বেশি মানুষকে।

টানা বর্ষনের মধ্যেই হেলিকপ্টার ও নৌকায় উদ্ধারকাজ চালিয়ে যাচ্ছে হাজারো সেনাসহ অসংখ্য উদ্ধারকর্মী। শনিবার বৃষ্টি আরও বেড়ে যাওয়ায় উদ্ধারকাজ বেশ ব্যাহত হয়। তবে রোববার সকাল থেকে বৃষ্টি কিছুটা কমে আসায় দ্বিগুণ গতিতে চালানো হচ্ছে উদ্ধারচেষ্টা। 

আবহাওয়া একটু ভালো হওয়ায় অবশেষে রোববার রেড অ্যালার্ট তুলে নিয়েছে আবহাওয়া অফিস। সোমবার থেকে আর ভারী বৃষ্টিপাতের আশঙ্কা নেই বলেও জানানো হয়েছে। 


About

Popular Links