Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বীর্যেও করোনাভাইরাস, যৌন সম্পর্কে সংক্রমণের ঝুঁকি

গবেষকেরা বলেন, সেরে ওঠা রোগীদের যৌন সম্পর্কে বিরত থাকা বা কনডম ব্যবহারের বিষয় বিবেচনা করা যেতে পারে

আপডেট : ০৮ মে ২০২০, ০৮:০৯ পিএম

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত পুরুষের বীর্য বা শুক্রাণুতে সার্স-সিওভি-২ নামে নতুন এক ধরনের করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। এমনকি ভাইরাসটির আক্রমণ থেকে সেরে ওঠার পরেও কিছু কিছু পুরুষের বীর্যে এই করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। 

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (০৭ মে) চীনের একদল গবেষক এমনটিই দাবি করেছেন। এর মধ্য দিয়ে যৌন সম্পর্কের মাধ্যমেও করোনাভাইরাস সংক্রমিত হওয়ার ঝুঁকি তৈরি হয়েছে। তবে গবেষকেরা বলছেন, বিষয়টি নিশ্চিত হতে আরও গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে। যুক্তরাজ্য ভিত্তিক বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানিয়েছে। 

চীনা বিজ্ঞানীদের ওই দলটি জানায়, চলতি বছরের শুরুর দিকে দেশটিতে মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়ার সময় শাংকুই মিউনিসিপ্যিাল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৩৮ জন পুরষকে পরীক্ষা করে এই ফল পাওয়া গেছে। 

জেএএমএ নেটওয়ার্ক ওপেন নামে একটি চিকিৎসা সাময়িকীতে ছাপা এক প্রতিবেদনে গবেষক দলটি জানান, আক্রান্ত ব্যক্তিদের ১৬ শতাংশের বীর্যেই করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে। যাদের চার ভাগের এক ভাগ ব্যক্তি সংক্রমণের চূড়ান্ত পর্যায়ে এবং প্রায় ৯% সেরে ওঠার পর্যায়ে ছিলেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, পুরুষের প্রজনন ব্যবস্থায় পূর্ণ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা না থাকায় সেখানে ভাইরাসটি টিকে থাকতে পারে। এর আগে পুরুষের বীর্যের মাধ্যমে ইবোলা ও জিকা ভাইরাস ছড়ানোর প্রমাণ পাওয়া গিয়েছিল, এমনকি রোগী সেরে ওঠার কয়েক মাস পরেও এমন ঘটনা ঘটেছে। 

তবে যৌন সম্পর্কের মাধ্যমে করোনাভাইরাস ছড়াতে পারে কিনা সেটি স্পষ্ট নয় জানিয়ে গবেষকেরা বলেন, এটি নিশ্চিত হতে আরও গবেষণা প্রয়োজন। আবার এমনও হতে পারে এটিই ভাইরাসটির প্রতিরোধে অংশ হয়ে উঠতে পারে। 

গবেষকেরা বলেন, এমন রোগীদের যৌন সম্পর্কে বিরত থাকা বা কনডম ব্যবহারের বিষয় বিবেচনা করা যেতে পারে। যেহেতু সেরে ওঠার পর্যায়ে রোগীদের মধ্যেও সুপ্ত অবস্থায়  সার্স-সিওভি-২ পাওয়া গেছে, ফলে এর মাধ্যমে অন্যের সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা বাদ দেওয়া যায় না। তাই করোনাভাইরাস এড়াতে শুধু রোগীর লালা বা রক্তের সংস্পর্শ এড়ানোই যথেষ্ট নয়।

About

Popular Links