Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

৫০০ নারী পাচারের দায়ে ভারতে গ্রেফতার বাংলাদেশী

চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ভারতে নিয়ে যৌন ব্যবসার দিকে ঠেলে দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে।

আপডেট : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৮:৪৬ পিএম

৫০০ নারীকে বাংলাদেশ থেকে মুম্বাইয়ে পাচারের অভিযোগে ভারতের মহারাষ্ট্র পুলিশ এক বাংলাদেশীকে আটক করেছে। ওই বাংলাদেশীকে থানে জেলার দোমবিভালি এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। 

ইন্ডিয়া টুডে-এর এক প্রতিবেদনের বরাতে জানা গেছে, ৩৮ বছর বয়সী ওই বাংলাদেশীর নাম মোহাম্মদ সাইদুল শেখ। 

ইন্ডিয়া টুডে-এর তথ্য অনুযায়ী, মোহাম্মদ সাইদুল শেখ চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ভারতে নিয়ে যেতেন নারীদের। পরবর্তীতে ওই নারীদেরকেই যৌন ব্যবসার দিকে ঠেলে দিতেন। এমন অভিযোগ রয়েছে সাইদুলের বিরুদ্ধে। ওই নারী পাচারচক্রের সঙ্গে জড়িত থাকার সন্দেহে সাইদুলসহ এ পর্যন্ত মোট সাত ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে ভারতীয় পুলিশ। আরও সাতজনকে গ্রেফতারের জন্য খোঁজা হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে পুলিশ ইন্সপেক্টর জিতেন্দ্র ভেঙ্কুট্টি জানান, অভিযুক্ত সাইদুল বাংলাদেশ থেকে তরুণীদের মুম্বাইয়ে পাচার করতো। প্রতি তরুণীর জন্য সে ৪০০০-৫০০০ রুপি করে কমিশন পেতো।

ইন্ডিয়া টুডের প্রতিবেদন থেকে আরও জানা গেছে, বিশেষ করে বাংলাদেশী কিশোরীদেরকে পাচারের অভিযোগ রয়েছে সাইদুলের বিরুদ্ধে। চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে তাদেরকে সীমান্তের ওপারে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর তাদের বিক্রি করে দেওয়া হতো যৌন ব্যবসার জন্য। ভারতীয় পুলিশের দাবি, সাইদুলের সহযোগীরাও প্রেমের ফাঁদে ফেলে সীমান্ত পার করে নারীদেরকে ভারতে নিয়ে যেতো।

২০১০ সাল থেকে ভারতে কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে সাইদুল। পাচারকারীদের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া চার কিশোরীর মাধ্যমেই সাইদুলের কথা জানতে পারে পুলিশ।


About

Popular Links