Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

একদিনে ৭ লাখেরও বেশি মানুষ করোনাভাইরাস আক্রান্ত

অন্যদিকে, প্রাণঘাতী এ ভাইরাসে বিশ্বব্যাপী মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ১৩,৫৯,১২০ জনে

আপডেট : ২০ নভেম্বর ২০২০, ১০:৪৩ এএম

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়েছে। নতুন করে এ ভাইরাস শনাক্তের হারের পাশাপাশি সমানতালে বেড়ে চলেছে মৃত্যু। একদিনের ব্যবধানে প্রায় সাতলাখেরও বেশি মানুষ করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়েছেন।

শুক্রবার (২০ নভেম্বর) সকালে জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয় (জেএইচইউ) প্রকাশিত সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫, ৬৮, ২২, ৬০৬ জনে। এছাড়া, কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ১৩,৫৯,১২০ জনে।

জেএইচইউ’র তথ্য অনুযায়ী, আজ সকাল পর্যন্ত সারা বিশ্বে প্রাণঘাতী এ ভাইরাস থেকে সুস্থ হয়েছেন ৩ কোটি ৬৪ লাখ ৬০ হাজার ১৭৮ ব্যক্তি।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের ‍উহানে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। চলতি বছরের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে মহামারি ঘোষণা করে। এর আগে ২০ জানুয়ারি জরুরি পরিস্থিতি ঘোষণা করে ডব্লিউএইচও।

করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এ পর্যন্ত দেশটিতে ১ কোটি ১৭ লাখ ১৩ হাজার ২৪২ জন করোনায় আক্রান্ত এবং ২ লাখ ৫২ হাজার ৫১৪ জন মৃত্যুবরণ করেছেন।

পৃথিবীর দ্বিতীয় জনবহুল দেশ ভারত রয়েছে করোনায় আক্রান্ত দেশের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে। ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল আক্রান্ত দেশের তালিকায় তৃতীয় স্থানে থাকলেও সর্বাধিক মৃতের সংখ্যায় রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশ ভারতে মোট আক্রান্ত ৮৯ লাখ ৫৮ হাজারেরও বেশি মানুষ এবং মারা গেছেন ১ লাখ ৩১ হাজার ৫৭৮ জন। ব্রাজিলে মোট শনাক্ত রোগী প্রায় ৫৯ লাখ ৮২ হাজার এবং মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৬৮ হাজার ৬১ জনের।

রোগী শনাক্তের দিক দিয়ে তালিকার পরবর্তী কয়েকটি দেশ হলো- ফ্রান্স (২১ লাখ ৩৭ হাজারের বেশি), রাশিয়া (প্রায় ২০ লাখ), স্পেন (১৫ লাখ ৪১ হাজারের বেশি) ও যুক্তরাজ্য (প্রায় ১৪ লাখ ৫৭ হাজার)।

মৃতের দিক দিয়ে বিশ্বে চতুর্থ স্থানে আছে মেক্সিকো (১ লাখ ১০৪ জন)। তারপরে যুক্তরাজ্যে ৫৩ হাজার ৮৭০ জন, ইতালিতে ৪৭ হাজার ৮৭০ জন, ফ্রান্সে ৪৭ হাজার ২০১ জন ও ইরানে ৪৩ হাজার ৪১৭ জন মারা গেছেন।

About

Popular Links