Saturday, May 25, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

করোনাভাইরাসের টিকা নিলে ভ্রমণ করতে পারবেন যেসব দেশ

দীর্ঘ নিষেধাজ্ঞার পর পর্যটনকেন্দ্রিক কিছু দেশ তাদের সীমান্ত করোনাভাইরাসের টিকা নেওয়া পর্যটকদের জন্য খুলে দিয়েছে


আপডেট : ০৮ মার্চ ২০২১, ০৮:৫০ পিএম

করোনাভাইরাস মহামারির জন্য বিশ্বের বিভিন্ন দেশের পর্যটন শিল্প দীর্ঘদিন ধরেই এক পর্যায়ে বন্ধ হয়ে আছে। তবে যারা করোনাভাইরাসের টিকা নিয়েছেন তাদের জন্য একটি সুখবর! সম্প্রতি কিছু পর্যটনকেন্দ্রিক দেশ ঘোষণা করেছে যে, তাদের সীমানা টিকাপ্রাপ্ত পর্যটকদের জন্য খুলে দেওয়া হবে।

করোনাভাইরাসের টিকা নিলে কোন কোন দেশে ভ্রমণ করা যাবে, সে বিষয়ে ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্য ইন্ডিপেনডেন্টের প্রতিবেদনটি তুলে ধরা হল।

সাইপ্রাস

ভূমধ্যসাগরের তৃতীয় বৃহত্তম দেশ সাইপ্রাস। চারপাশে সমুদ্রবেষ্টিত এ দ্বীপরাষ্ট্রে গেলে পাহাড়ের দেখাও পাবেন। প্রাচীনত্বের গন্ধে ভরপুর হলেও দেশে আধুনিকতার কমতি নেই। করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন নেওয়া পর্যটকদের জন্য এ দেশের দরজা এখন খোলা।

দেশটির সরকার ঘোষণা করেছে যে, যে সব ব্রিটিশ নাগরিককে করোনাভাইরাসের টিকা দেওয়া হয়েছে তারা ১ মে থেকে কোভিড পরীক্ষা ছাড়াই দেশটিতে প্রবেশ করতে পারবে।

মাদেরিয়া আইল্যান্ড

পর্তুগালের এই দ্বীপপুঞ্জ এবং স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলটি সম্পূর্ণরূপে টিকা প্রাপ্ত অথবা কোভিড-১৯ থেকে সেরে ওঠা পর্যটকদের আগমনের জন্য একটি "গ্রীন করিডোর" চালু করছে।

যে সব পর্যটক গত ৯০ দিনে কোভিড-১৯ থেকে সেরে উঠেছেন অথবা টিকা নেওয়ার সরকারি সার্টিফিকেট দেখাতে পারবেন, তাদের আর কোভিড টেস্টের নেগেটিভ রিপোর্ট জমা দিতে হবে না।

পোল্যান্ড

করোনাভাইরাসের টিকার দুটি ডোজ নেওয়া পর্যটকদের জন্য কোয়ারেন্টিনের প্রয়োজনীয়তা তুলে নিয়েছে পোল্যান্ড। এখন থেকে দেশটিতে যাওয়া পর্যটকদের জন্য বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে না। 

যারা পোলিশ সীমান্ত অতিক্রম করার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে নেওয়া কোভিড টেস্ট এর নেগেটিভ রিপোর্ট দেখাতে পারবেন, তারাও এই সুবিধা পাবেন। 

এস্তোনিয়া

স্ক্যান্ডিনেভিয়ান দেশগুলোর সবচেয়ে নিকটবর্তী দেশটির নাম এস্তোনিয়া। প্রকৃতির অপার বিস্ময়ে ভরপুর এ দেশটিতে যারা কোভিড-১৯ থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছে অথবা যাদের এই ভাইরাসের টিকা দেওয়া হয়েছে তাদের জন্য বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিন থেকে অব্যহতি দেওয়া হয়েছে। 

দেশটির পররাষ্ট্র দপ্তরের মতে, কোভিড-১৯ থেকে সেরে ওঠার প্রমাণ হিসেবে একজন ডাক্তারের সার্টিফিকেট দেখাতে হবে। একইসঙ্গে দেখাতে হবে যে প্রতিষ্ঠান রোগীকে পরিচর্যা করেছে তার বিবরণ। টিকা নেওয়া পর্যটকদের টিকা গ্রহণের সার্টিফিকেট দেখাতে হবে। 

সিসিলি

মাদাগাস্কারের উত্তর-পূর্বে অবস্থিত পূর্ব আফ্রিকার দ্বীপরাষ্ট্র সিসিলি। রাষ্ট্রটির নাম অনেকেরই অজানা। ছোট্ট রাষ্ট্রটি ১১৫টি দ্বীপ নিয়ে গঠিত। প্রাচীনকালে এটি ছিল এশিয়া এবং আফ্রিকার মধ্যে বাণিজ্য সংযোগকারী স্থান। এখানে জলদস্যুদের আস্তানাও ছিল অনেক। বর্তমানে সেখানকার জনসংখ্যা ১ লাখেরও কম।

ইস্ট-ইন্ডিয়া কোম্পানির সদস্যরা এ দ্বীপ ঘুরেই ভারতবর্ষে প্রবেশ করতেন। এদেশে বেড়াতে যেতে চাইলেও করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক নেওয়ার সার্টিফিকেট লাগবে।

জর্জিয়া

জর্জিয়া পূর্ব ইউরোপের একটি প্রজাতান্ত্রিক রাষ্ট্র। প্রাকৃতিক সৌন্দর্য নির্ভর এই দেশটি পর্যটকদের কাছে খুবই পরিচিত। আবার এটিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া স্টেটের সাথে মিলিয়ে ফেলবেন না!

জর্জিয়া প্রথম দেশ যারা টিকাপ্রাপ্ত ভ্রমণকারীদের জন্য প্রবেশ নিষেধাজ্ঞা পুরোপুরি তুলে নিয়েছে। দেশটিতে প্রবেশের জন্য কোনো পরীক্ষা এবং কোনো কোয়ারেন্টিনের প্রয়োজন নেই।

রোমানিয়া

করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক নেওয়া থাকলেই ইউরোপের এ দেশেও ঘুরতে যেতে পারবেন। কৃষ্ণসাগরের ঠিক দক্ষিণে অবস্থিত দেশটি পর্যটকদের স্বর্গরাজ্য। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের আধার এ দেশে সব সময়ই পর্যটকদের ভিড় লেগে থাকে। ভ্যাকসিন নেওয়ার পর ১০ দিন কাটলেই রোমানিয়া আপনাকে স্বাগত জানাবে।

আইসল্যান্ড

বরফের দেশ আইসল্যান্ড। প্রচণ্ড ঠাণ্ডার কারণে সেখানকার জনসংখ্যাও বেশ কম। পর্যটকরা এসব দেশে বিশেষ বেড়াতে যান না। তবে ঠাণ্ডা সহ্য করতে পারলে এই দেশ থেকে ঘুরে আসতে পারেন। আইসল্যান্ডে রাতেও সূর্য দেখা যায়। জুন মাসে এই নিশীথ সূর্য সবচেয়ে ভালো করে দেখা যায়।

মার্চ ও সেপ্টেম্বর মাসে এখানে দিন এবং রাত প্রায় সমান। অন্যদিকে, ডিসেম্বর মাসে দিনের মধ্যে ২০ ঘণ্টাই রাত। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, উত্তরমেরুর আকাশে আলোর দৃশ্য নাকি বাকরুদ্ধ করে দেয় সবাইকে। করোনাভাইরাসের প্রতিষেধক নেওয়া থাকলে বিনা কোয়ারেন্টিনেই দেশটিতে ঘুরতে যেতে পারবেন। ১ মে থেকে এ নিয়ম চালু করতে চলেছে আইসল্যান্ড সরকার।


About

Popular Links