Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

আফগানিস্তানে আতঙ্ক, নাগরিকদের ফিরিয়ে নিতে সৈন্য পাঠাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র-ব্রিটেন

তালেবানদের ক্রমাগত হামলার মুখে নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে রাজধানী কাবুলে আশ্রয় নিচ্ছেন দেশটির সাধারণ মানুষ

আপডেট : ১৪ আগস্ট ২০২১, ০৯:১৯ এএম

আফগানিস্তানে একের পর এক বড় বড় প্রাদেশিক শহর দখল করছে তালেবানরা। রাজধানী কাবুলের পতনের আশঙ্কায় আতঙ্ক বিরাজ করছে পুরো দেশজুড়ে। যে যেভাবে পারছে পালানোর চেষ্টা করছে। তালেবানদের হামলার মুখে নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে দেশটির রাজধানী কাবুলে আশ্রয় নিচ্ছেন সাধারণ মানুষ। তবে কিছুদিনের মধ্যেই রাজধানী কাবুলও আক্রান্ত হতে পারে বলে আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের।

বিবিসি জানিয়েছে, কাবুলে মার্কিন দূতাবাসের সিংহভাগ কূটনীতিক এবং মার্কিন নাগরিকদের দ্রুত সরিয়ে নিতে ৩০০০ মেরিন সেনাকে কাবুলে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা বিভাগ (পেন্টাগন)। এই সৈন্যরা কাবুল বিমানবন্দরে মোতায়েন থাকেবে এবং বিশেষ বিমানে করে মার্কিন নাগরিক এবং কূটনীতিকদের ফিরে আনার কাজে সাহায্য করবে।

পেন্টাগন জানিয়েছে, আরো অতিরিক্ত ৪০০০ মার্কিন মেরিন সেনা ওই অঞ্চলে যাচ্ছে যাতে পরিস্থিতি বেগতিক হলে তারা দ্রুত তারা আফগানিস্তানে যেতে পারে। কাবুল থেকে আমেরিকান নাগরিক এবং কূটনীতিকদের জরুরি ভিত্তিতে ফিরিয়ে আনার এই পরিকল্পনা ইঙ্গিত করছে যে আফগানিস্তান থেকে সৈন্য প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তে অনড় যুক্তরাষ্ট্র প্রেসিডেন্ট বাইডেন।

নিউ ইয়র্ক টাইমস এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, আগামী একমাসের মধ্যে কাবুল সরকারের পতন হতে পারে বলে আশঙ্কা করছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির উত্তরের বড় বড় শহর যে গতিতে তালেবান কব্জা করছে এবং যেভাবে আফগান সেনাবাহিনীর প্রতিরোধ ভেঙ্গে পড়ছে তাতে বাইডেন সরকার আফগানিস্তান থেকে মার্কিনদের বের করে আনার সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হচ্ছে তারা।

অন্যদিকে, কাবুলে ব্রিটিশ দূতাবাসের কর্মী এবং ব্রিটিশ নাগরিকদের ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করতে ৬০০ সৈন্য কাবুলে পাঠাচ্ছে ব্রিটেনও।

গত সপ্তাহেই ব্রিটিশ সরকারে পক্ষ থেকে সমস্ত ব্রিটিশ নাগরিককে যত দ্রুত সম্ভব আফগানিস্তান ছাড়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। এখনও প্রায় ৪০০০ ব্রিটিশ নাগরিক আফগানিস্তানে রয়েছে।


About

Popular Links