Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সামাজিক কুপ্রথা: ভারতে ‘বিবস্ত্র’ করে গ্রাম ঘোরানো হলো শিশুদের

বৃষ্টির দেবতাদের খুশি করার জন্য একটি আচারের অংশ হিসেবে এটি করা হয়েছে

আপডেট : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:১৫ পিএম

ভারতের মধ্যপ্রদেশের একটি খরাকবলিত গ্রামে সামাজিক কুসংস্কারের শিকার হয়ে নির্যাতন ভোগ করতে হয়েছে ছয়টি অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়েশিশুকে। বৃষ্টির আশায় দেবতাদের “খুশি” করতে ওই শিশুদের “বিবস্ত্র” করে পুরো গ্রাম ঘুরিয়েছে গ্রামবাসী। 

এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি।

ঘটনায় জড়িতরা বলেছে “বৃষ্টির দেবতাদের খুশি করার জন্য একটি আচারের অংশ হিসেবে এটি করা হয়েছে। এর ফলে বৃষ্টি নেমে আসবে।”

গত রবিবার (৫ সেপ্টেম্বর) ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মধ্যপ্রদেশের দামোর জেলার বানিয়া গ্রামে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা গেছে যে অল্পবয়সী নারী শিশুদের কাঁধে কাঠের হামানদিস্তা নিয়ে বিবস্ত্র হয়ে হাঁটছে, যার সঙ্গে আবার ব্যাঙ বাঁধা ছিল। 

ভিডিওতে দেখা গেছে, শিশুগুলোর মধ্যে দু-একজনের বয়স পাঁচ বছরেরও কম। ঘটনাটি জানাজানি হলে এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এর প্রতিবাদ জানিয়েছেন নেটিজেনরা। 

এরপর নড়েচড়ে বসেছে ভারতের জাতীয় শিশু অধিকার রক্ষা কমিশন (এনসিপিসিআর)। ইতোমধ্যে দামোর জেলা প্রশাসনের কাছ থেকে এ সম্পর্কে প্রতিবেদন চাওয়া হয়েছে।

দামোর পুলিশ সুপার টেনিওয়ার সংবাদ সংস্থা প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়াকে (পিটিআই) বলেছেন, এই ঘটনার বিরুদ্ধে কোনো আনুষ্ঠানিক অভিযোগ আসেনি। তবে পুলিশ ঘটনাটি তদন্ত করছে।

তিনি বলেন, “যদি আমরা তদন্তে দেখতে পাই যে মেয়েগুলোকে নগ্ন হয়ে হাঁটতে বাধ্য করা হয়েছে, তাহলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

গ্রামবাসী প্রতিবছর এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। তারা শিশুদের সম্মতিতে এরকমটা করেন বলে জানিয়েছেন টেনিওয়ার।

ভারতের সংবাদ সংস্থাগুলো বলছে, নারী শিশুদের দিয়ে করানো ওই মিছিলটি গ্রামের প্রতিটি বাড়িতে গিয়ে থামে এবং তারা খাদ্যশস্য সংগ্রহ করে। যা পরে একটি স্থানীয় মন্দিরের রান্নাঘরে দান করা হয়।

আয়োজকদের মধ্যে একজন প্রাপ্তবয়স্ক নারী পিটিআইকে জানান, “আমরা বিশ্বাস করি যে এটি বৃষ্টি আনবে।”

দামোর জেলা প্রশাসক এস কৃষ্ণ চৈতন্য বলেন, “মেয়েদের বাবা ও মা-ও এই আচারে জড়িত ছিলেন এবং স্থানীয়দের কেউ এখনও পর্যন্ত এই ঘটনায় অভিযোগ করেননি।”

তিনি বলেন, “এ ধরনের বিষয়গুলোতে প্রশাসন কেবল গ্রামবাসীদের কুসংস্কার সম্পর্কে সচেতন করতে পারে এবং তাদের বোঝাতে পারে যে এই ধরনের অভ্যাসগুলি কাঙ্ক্ষিত ফলাফল দেয় না।”

উল্লেখ্য, ভারতীয় কৃষি মূলত মৌসুমী বৃষ্টির উপর নির্ভর করে। অনেক অঞ্চলে বৃষ্টির জন্য এরকম স্থানীয় কিছু রীতিনীতি রয়েছে। কিছু সম্প্রদায় আছে যারা যজ্ঞ (হিন্দু অগ্নি অনুষ্ঠান) পালন করে, অন্যরা ব্যাঙ বা গাধাকে বিয়ে করে অথবা বৃষ্টি দেবতাদের স্তুতি করে গান গেয়ে মিছিল বের করে। সমালোচকরা বলছে এ ধরনের অনুষ্ঠানগুলো কেবল সাধারণ মানুষকে কষ্ট দেয় এবং বিভ্রান্ত করে।

About

Popular Links