Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সরকারি ভাতা পেতে মায়ের মৃতদেহ মমি করে রাখলো ছেলে!

ডিমেনশিয়ায় ভোগা অস্ট্রিয়ান ওই নারী গত বছরের জুনে মারা যান

আপডেট : ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৫২ পিএম

সম্প্রতি অস্ট্রিয়ান পুলিশ ৮৯ বছর বয়সী এক নারীর মৃতদেহ খুঁজে পেয়েছে। তিনি এক বছরেরও বেশি সময়ের আগে মারা গেলেও সরকারি ভাতা প্রাপ্তি অব্যাহত রাখতে ওই নারীর ছেলে তার মৃতদেহকে মমি করে রেখেছিল।

ইংলিশ দৈনিক দ্যা গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে এ কথা জানা যায়।

প্রতিবেদনে জানা যায়,  ওই ব্যক্তি প্রতি মাসে ডাকের মাধ্যমে সরকারি ভাতা পেতেন। কিন্তু সম্প্রতি একজন নতুন ডাকপিয়ন সুবিধাভোগীকে দেখতে চাইলে ওই ব্যক্তি তা অস্বীকার করেন। পরে ওই পিয়ন কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানান এবং শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) লাশটি উদ্ধার করা হয়।

অস্ট্রিয়ান পুলিশ এক বিবৃতিতে জানায়, ডিমেনশিয়ায় ভোগা ওই নারী গত বছরের জুনে মারা যান।

বিবৃতিতে অস্ট্রিয়ান পুলিশ বলে, "৬৬ বছর বয়সী লোকটি সরকারী ভাতা প্রাপ্তি অব্যাহত রাখার জন্য তার মায়ের মৃতদেহ মমি রেখেছিল।"

মায়ের সঙ্গে অস্ট্রিয়ার টাইরল অঞ্চলের ইনসব্রুক শহরে থাকা ওই সন্দেহভাজন  ব্যক্তি ২০২০ সালের জুন থেকে ৫০ লাখ টাকারও বেশি ভোগ করেছিল। 

জিজ্ঞাসাবাদে তিনি স্বীকার করেন দুর্গন্ধ এড়াতে তিনি তার মায়ের মৃত্যুর পরে বরফ দিয়ে ভূ-গর্ভস্থ অঞ্চলে তার শরীর হিমায়িত করেছিলেন। তারপর তিনি তার মায়ের দেহকে ব্যান্ডেজের মধ্যে আবৃত করে রাখেন, যেন শরীর থেকে তরলের নিঃসরণ হলে ব্যান্ডেজের মাধ্যমে তা শোষণ করা যায়।

পুলিশের সামাজিক সুরক্ষা জালিয়াতি ইউনিটের দায়িত্বে থাকা হেলমুট গফলার পাবলিক ব্রডকাস্টার ওআরএফকে বলেন, "তিনি তার মায়ের মৃতদেহকে বিড়ালের লিটার দিয়ে ঢেকে রেখে সেটিকে মমি করে রেখে দিয়েছিলেন।"

ওই ব্যক্তির ভাই যখন তাদের মায়ের খোঁজ নিতে আসে, তখন ওই সন্দেহভাজন ব্যক্তি তাকে বলে যে তাদের মা হাসপাতালে রয়েছে।

ওই ব্যক্তি তার মাকে হত্যা করেছে কি না সেই ব্যাপারে ময়নাতদন্তের নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। আপাতত সন্দেহভাজন ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে সরকারি ভাতা জালিয়াতি এবং লাশ লুকানোর অভিযোগ আনা হয়েছে।

About

Popular Links