Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বিজেপি এমপির সঙ্গে মায়ের সম্পর্কের কথা জানালেন তসলিমা নাসরিনের ‘সন্তান’

অঙ্কিতা ভট্টাচার্য নামে ওই মেয়ে নিজেকে জর্জ বেকার ও তসলিমা নাসরিনের সন্তান বলে দাবি করেছেন। ভারতের অনলাইন পোর্টাল কলকাতা ২৪*৭ এ বিষয়টি প্রকাশিত হলে পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে শুরু হয় তর্ক-বিতর্কের ঝড়।

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০১৮, ১২:২০ পিএম

ভারতে নির্বাসিত বাংলাদেশি লেখিকা তসলিমা নাসরিনকে নিয়ে নতুন বিতর্কের ঝড় উঠেছে কলকাতায়। পশ্চিমবঙ্গ লোকসভায় বিজেপির সাংসদ জর্জ বেকারের সঙ্গে তার প্রণয়ের কথা জানালেন তাদেরই "কন্যা সন্তান"। 

অঙ্কিতা ভট্টাচার্য নামে ওই মেয়ে নিজেকে জর্জ বেকার ও তসলিমা নাসরিনের সন্তান বলে দাবি করেছেন। ভারতের অনলাইন পোর্টাল কলকাতা ২৪*৭ এ বিষয়টি প্রকাশিত হলে পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে শুরু হয় তর্ক-বিতর্কের ঝড়।

বিজেপি সাংসদ-তসলিমা ‘অবৈধ’ সম্পর্ক ফাঁস করল মেয়ে শিরোনামে কলকাতা ২৪*৭-এর ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, অঙ্কিতা ভট্টাচার্য নামের ওই মেয়েটির ভাষায়, "আমি অঙ্কিতা ভট্টাচার্য। আমার স্বামীর নাম ইন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য। আমার বাবার নাম জর্জ বেকার। মায়ের নাম তসলিমা নাসরিন।"

সংবাদটিতে বলা হয়, জর্জ বেকারের সঙ্গে তসলিমা নাসরিনের সম্পর্ক ছিল এবং বর্ধমানের ভাতার থানা এলাকার নারায়ণপুর গ্রামের বাসিন্দা অঙ্কিতা ভট্টাচার্য তাদের সন্তান। অঙ্কিতার ছোটবেলা কেটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বেহালায়। আর তাকে লালন-পালন করেছেন গৌরী ভট্টাচার্য নামের এক নারী। যিনি আবার জর্জ বেকারের স্ত্রী অর্পিতার বোন।

জন্মের পর বেশ কয়েক বছর বাবা জর্জ বেকার ও মা তসলিমা নাসরিনের সঙ্গেই কাটিয়েছিলেন অঙ্কিতা। সেই সময়ের বেশ কিছু ছবিও গৌরীদেবী তাকে দিয়েছে। গৌরীদেবী মারা গেছেন। তবে তার জীবদ্দশায় ভাতারের বাসিন্দা ইন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যের সঙ্গে বিয়ে দেন অঙ্কিতার।

অঙ্কিতা ভট্টাচার্য আরও জানিয়েছেন, নিজের প্রকৃত বাবা-মায়ের বিষয়ে জানার পর জর্জ বেকারের সঙ্গে তিনি যোগাযোগ করেন।  সে সময় ‘জর্জ বেকারের কাছে আমি পিতৃস্নেহ পেয়েছি’ বলেও জানান।

প্রতিবেদনে বলা হয়, পেশায় অভিনেতা জর্জ বেকারের বাড়ি আসামে। অসমীয় ভাষার পাশাপাশি অনেক বাংলা এবং হিন্দি ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি।২০১৪ সালে রাজনীতিতে যোগ দেন জর্জ বেকার। পরবর্তীতে লোকসভা ভোটে হাওড়া থেকে নির্বাচন করে হেরে গেলেও রাষ্ট্রপতির মনোনয়ন পেয়ে অ্যাংলো ইন্ডিয়ান হিসেবে লোকসভার সদস্য হন।

প্রতিবেদন তসলিমা নাসরিন সম্পর্কে বলা হয়, "বাংলাদেশের এই লেখিকাকে ঘিরে নানাবিধ বিষয় নিয়ে বিতর্ক রয়েছে। যার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ধর্মীয় বিষয় নিয়ে বিরূপ মন্তব্য। অন্য একটি হল তাঁর যৌন জীবন। জীবনে তিন বার বিয়ে করেছেন তিনি। প্রথমটি আশির দশকে। পরের দু’টি ১৯৯০ সাল থেকে ১৯৯২ সালের মধ্যে। বিয়ের বাইরেও যে তাঁর যৌন সম্পর্ক ছিল সেই বিষয়ে অবশ্য কোনও লুকোচুরি রাখেননি তসলিমা। তবে ঠিক কার কার সঙ্গে তিনি নিজের যৌনতা ভাগ করে নিয়েছেন সেই বিষয়ে অনেক বিতর্ক আছে।"

তসলিমা নাসরিন আর জর্জ বেকারের সম্পর্ক, এবং তাদের সম্পর্কের পরিনতিতে জন্ম নেওয়া মেয়ে অঙ্কিতার দাবির সত্য-মিথ্যা প্রমাণ হয়নি এখনো। তবে অঙ্কিতার কাছে থাকা ছেলেবেলার ছবিতে তসলিমার উপস্থিতি রয়েছে। মা তসলিমাকে মনে থাকলেও, বড় হওয়ার পর আর তার সঙ্গে কোনোদিন যোগাযোগ হয়নি বলেই জানিয়েছেন অঙ্কিতা।

About

Popular Links